লক্ষ্মীপুরে টাকার বিনিময়ে আ'লীগের 'পকেট' কমিটি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়োন্টিফোর.কম, লক্ষ্মীপুর
পকেট কমিটির বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের প্রতিবাদ সভা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

পকেট কমিটির বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের প্রতিবাদ সভা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

লক্ষ্মীপুরে সদর উপজেলার দিঘলী ইউনিয়নে টাকার বিনিময়ে ৯টি ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের 'পকেট' কমিটি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

কমিটিগুলো বাতিলের দাবিতে (১৪ জুলাই) সন্ধ্যায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা দিঘলী ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসায় প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে।

পরে দিঘলী বাজারে মিছিলে 'পকেট' কমিটি দেওয়ায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল ওদুদ লিটন ও সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন বাবলুর বিরুদ্ধে স্লোগান দেয় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা।

দিঘলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. মহসিনের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন- ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুজ জাহের, নাসির উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাফর ইকবাল, জেলা কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাকসুদুল করিম মামুন, যুবলীগ নেতা সালাউদ্দিন জাবের, চন্দ্রগঞ্জ থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো. আলাউদ্দিন, দিঘলী ইউনিয়ন কৃষক লীগের আহ্বায়ক জাকির হোসেন খোকন, যুগ্ম-আহবায়ক শাহ আলম, আবদুল করিম প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, 'আওয়ামী লীগ নেতা লিটন ও বাবলু টাকার বিনিময়ে ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডেই পকেট কমিটির অনুমোদন দিয়েছে। বিএনপি নেতাদেরকে দিয়ে তারা ওয়ার্ড কমিটিগুলো সাজিয়েছে। এতে আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাকর্মীরা পদ থেকে বঞ্চিত হয়েছে।'

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে দিঘলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল ওদুদ লিটন বলেন, 'জেলা ও চন্দ্রগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের নেতাদেরকে নিয়ে সম্মেলন করে ওয়ার্ড কমিটিগুলো দেওয়া হয়েছে। টাকার বিনিময়ে পকেট কমিটি দেওয়ার বিষয়টি সত্য নয়। কমিটিতে পছন্দ অনুযায়ী নেতাকর্মীরা না থাকাই তারা আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে।'

আপনার মতামত লিখুন :