মংলায় মাছের ঘেরে হাঁস নামায় নারীকে নির্যাতন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, বাগেরহাট
হাসপাতালে ভর্তি নির্যাতনের শিকার নারী, ছবি: বার্তোটোয়েন্টিফোর.কম

হাসপাতালে ভর্তি নির্যাতনের শিকার নারী, ছবি: বার্তোটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বাগেরহাটের মংলায় প্রতিবেশীর মাছের ঘেরে হাঁস নামায় এক নারীকে অমানবিক নির্যাতন ও শ্লীলতাহানীর অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) সন্ধ্যায় উপজেলার চাঁদপাই ইউনিয়নের কানাইনগর গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই নারীর স্বামী পরিতোষ অধিকারী।

দায়েরকৃত অভিযোগে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কানাইনগর গ্রামের নন্দ হালদারের মৎস্য ঘেরে একই এলাকার এক নারীর কয়েকটি হাঁস নামলে তিনি গালিগালাজ করেন। এ সময় ওই নারী তার হাঁস উঠাতে গেলে ঘেরের মধ্যেই তাকে ফেলে কুড়ালের হাতল দিয়ে পিটিয়ে যখম করেন নন্দ।

একই সঙ্গে ওই নারীর কাপড় ছিঁড়ে শ্লীলতাহানী করে বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে গুরুতর আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

মংলা থানার কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তা (এসআই) মো. আহাদ বলেন, ‘এ ঘটনার তদন্ত করে মামলা রুজু করা হবে।’

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. সেলিম বলেন, ‘মৎস্য ঘের ব্যবসায়ী নন্দ হালদার খারাপ প্রকৃতির লোক। সামান্য হাঁস নিয়ে সে ওই নারীর ওপর যে নির্যাতন চালিয়েছে তার সুষ্ঠু বিচার হওয়া প্রয়োজন।’

এদিকে, এ ঘটনায়র অভিযুক্ত নন্দ হালদারের কাছে জানতে চাইলে মোবাইল ফোনে তিনি বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘আমি এখন চেয়ারম্যানের (মোল্লা তারিকুল ইসলাম, চাঁদপাই ইউপি) কাছে এসেছি, পরে কথা বলব।’ এ কথা বলেই তিনি ফোন রেখে দেন।

 

আপনার মতামত লিখুন :