ভিড় নেই হিলি কামারপল্লীতে

উপজেলা করেসপেন্ডেন্ট, বার্তাটোয়ান্টিফোর.কম, হিলি (দিনাজপুর)
হিলির কামারপল্লীতে কাজ করছেন একজন কামার/ ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

হিলির কামারপল্লীতে কাজ করছেন একজন কামার/ ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

আর মাত্র পাঁচ দিন পরই পবিত্র ঈদুল আজহা। কোরবানির পশুর চামড়া ছাড়ানো ও মাংস কাটার দা, বটি, চাকু তৈরিতে কামাররা ব্যস্ত হলেও ক্রেতাদের ভিড় নেই দিনাজপুরের হিলির বাজারগুলোতে।

অন্যান্য বছর এ সময়টাতে কামারপল্লীতে ক্রেতাদের ভিড় থাকলেও এবার চিত্র ভিন্ন। কামাররা ব্যস্ত সময় পার করলেও চাহিদা মতো ক্রেতা নেই বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। দা-বটি-চাকু বিক্রেতাদের দোকানেও ক্রেতাদের ভিড় নেই।

কামার প্রদ্বীপ বাবু বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, ‘কয়লা, লোহাসহ সব জিনিসপত্রের দাম বেড়ে যাওয়াই আগের মতো লাভ তেমন হয় না। পূর্ব পুরুষদের এ প্রাচীন ব্যবসাকে টিকিয়ে রাখার জন্য চালিয়ে যাচ্ছি।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/06/1565082808591.gif

দা-বটি-চাকু বিক্রেতা শ্রী শুনীল কর্মকার বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, ‘লোহাসহ সব জিনিস বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। তাই কামারদের নিকট বেশি দামে কিনছি এবং বেশি মূল্যে বিক্রি করতে হচ্ছে।’

তিনি জানান, গত বছরের তুলনায় এ বছরে বাজারে ক্রেতাদের আনাগোনা অনেকটায় কম। প্রতিবছর কোরবানির ঈদের ২০ দিন আগে থেকেই বেচা-কেনা শুরু হয়। ঈদের মাত্র আর কদিন বাকি সকাল থেকে দোকানে বসে রয়েছেন, ক্রেতা নেই।

আপনার মতামত লিখুন :