Barta24

রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

English

কুষ্টিয়ায় মাদক মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ায় মাদক মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন
যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি, ছবি: সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
কুষ্টিয়া


  • Font increase
  • Font Decrease

কুষ্টিয়ায় মাদক মামলায় মিলন মন্ডল (৩৫) নামে এক যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

বুধবার (১৪ আগস্ট) দুপুরে কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী এই রায় ঘোষণা করেন। এ সময় আদালতে আসামি উপস্থিত ছিলেন।

সাজাপ্রাপ্ত মিলন মন্ডল দৌলতপুর উপজেলার মহিষকুন্ডি গ্রামের আবু মন্ডলের ছেলে।

আদালত সূত্র জানা যায়, ২০১৬ সালের ৩০ এপ্রিল বিকেল ৬টায় ভেড়ামারা উপজেলার কাজিহাটা গ্রামে পুলিশি অভিযানকালে দৌলতপুর-ভেড়ামারা সড়কের মহিষাডোরা নামক স্থান থেকে আসামি মিলনকে পলিথিনে মোড়ানো ৫০ গ্রাম হেরোইনসহ আটক করে পুলিশ।

পরে উদ্ধার আলামতসহ মিলনের বিরুদ্ধে এএসআই মো. আকতারুজ্জামান বাদী হয়ে ১৯৯০ সালের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের দ:বি: ১৯ এর (১) ধারার ১(খ) ধারায় মামলা করে ভেড়ামারা থানায় সোপর্দ করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৬ সালের ৩১ মে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ।

কুষ্টিয়া জজ কোর্টের সরকারি কৌসুলি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী জানান, আসামি মিলনের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের চার্জ গঠনপূর্বক রাষ্ট্রপক্ষে দীর্ঘ সাক্ষ্য শুনানি শেষে হেরোইন ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগ সন্দেহাতীত প্রমাণিত হওয়ায় এই রায় ঘোষণা করেন আদালত। একই সঙ্গে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর কারাভোগের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আপনার মতামত লিখুন :

শিবচরে ডেঙ্গু জ্বরে গৃহবধূর মৃত্যু

শিবচরে ডেঙ্গু জ্বরে গৃহবধূর মৃত্যু
এডিস মশা, ছবি: সংগৃহীত

মাদারীপুরের শিবচরে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে সুমি আক্তার (৩০) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে শিবচর উপজেলার চারজনসহ মাদারীপুর জেলার মোট আটজন ডেঙ্গু জ্বরে মারা গেলেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে গত ২০ আগস্ট শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন সুমি। অবস্থার অবনতি হওয়ায় শনিবার (২৪ আগস্ট) রাতে তাকে ঢাকা নেওয়া হচ্ছিল। কিন্তু পথেই তার মৃত্যু হয়। সুমি শিবচর উপজেলার কাঁঠালবাড়ি ঘাট এলাকার স্পিডবোটচালক আনোয়ার ফকিরের স্ত্রী।

বিষয়টি নিশ্চিত করে শিবচর উপজেলা পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. আব্দুল মোকাদ্দেস বলেন, এখনো হাসপাতালে ২৪ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি আছেন।

পরিবর্তন হচ্ছে রাজবাড়ী ও ফরিদপুরের দুই মোড়ের নাম

পরিবর্তন হচ্ছে রাজবাড়ী ও ফরিদপুরের দুই মোড়ের নাম
গোয়ালন্দ মোড় ও ফরিদপুরের রাজবাড়ী রাস্তার মোড় (ডানে), ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

পদ্মা কন্যাখ্যাত রাজবাড়ী ও ফরিদপুর জেলার গুরুত্বপূর্ণ ও ব্যস্ততম দু’টি মোড়ের নাম পরিবর্তনের জন্য সুপারিশ পাঠিয়েছে প্রশাসন। মোড় দু’টির নাম নিয়ে যাত্রী ও যানবাহনের চালকদের মধ্যে নানা সময়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়। এজন্য নাম পরিবর্তনের সুপারিশ পাঠানো হয়েছে বলে জানান রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম।

মোড় দু’টি হলো রাজবাড়ী জেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ‘গোয়ালন্দ মোড়’ ও একই সড়কের ফরিদপুর জেলার ‘রাজবাড়ী রাস্তার মোড়’। এরই মধ্যে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জেলার উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় মোড় দু’টির নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সভায় গোয়ালন্দ মোড়ের নাম ‘রাজবাড়ী রাস্তার মোড়’ এবং ফরিদপুরের ‘রাজবাড়ী রাস্তার মোড়ের নাম ‘ফরিদপুর রাস্তার মোড়’ রাখার সুপারিশ করা হয়েছে।

নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে রাজবাড়ী সার্কেল নামের একটি ফেসবুক গ্রুপ তাদের পেজে লিখেছে, বিবর্তন বা পরিবর্তনই শুদ্ধতা ও উন্নয়নের মূল বীজ। আজকের পরিবর্তন বর্তমানের কাছে অসামঞ্জস্য লাগলেও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য হবে সহজ ও সুন্দর। দূর হবে বিভ্রান্তি।

এ ব্যাপারে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, মোড় দু’টির নাম নিয়ে যাত্রী ও যানবাহনের চালকদের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়। বিশেষ করে দূরের যাত্রীদের ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। আমাদেরও আগে বিষয়টি সড়ক বিভাগের সচিবের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। তারই নির্দেশনায় সড়ক বিভাগের পক্ষ থেকে রাজবাড়ী ও ফরিদপুরে আসা যাত্রীদের বিভ্রান্তি দূর করতে গোয়ালন্দ মোড়কে ‘রাজবাড়ী রাস্তার মোড়’ এবং ফরিদপুরের ‘রাজবাড়ী রাস্তার মোড়কে’ ফরিদপুর রাস্তার মোড়’ করার সুপারিশ করা হয়েছে।

তবে ফরিদপুর জেলা প্রশাসক অতুল সরকার বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে জানান যে তিনি মোড় দু’টির নাম পরিবর্তনের বিষয়ে এখনও কিছু জানেন না।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র