ফার্মেসিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত, ভুয়া চিকিৎসককে ১ লাখ টাকা জরিমানা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, নেত্রকোনা
অভিযুক্ত ডাক্তার, ছবি: সংগৃহীত

অভিযুক্ত ডাক্তার, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রোগীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে নেত্রকোনার কেন্দুয়া পৌর শহরে জননী মেডিকেল হল নামের একটি ফার্মেসিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ভুয়া এক চিকিৎসককে ১ লাখ টাকা জরিমানা এবং জরিমানার টাকা অনাদায়ে তাকে এক মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৬ আগস্ট) রাত আটটার দিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) শিরিন সুলতানা কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামানকে সঙ্গে নিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এ দণ্ড প্রদান করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত ওই ভুয়া চিকিৎসক হলেন, নাজিরুল হক। তিনি ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা বাসস্ট্যান্ড এলাকার বাসিন্দা নুরুল হকের ছেলে।

এ বিষয়ে কেন্দুয়া থানার ওসি রাশেদুজ্জামানের সাথে কথা হলে তিনি এসব তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, 'শুক্রবার বিকালে নাজিরুল হক জননী মেডিকেল হলে বসে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরিচয়ে রোগীদের দেখে সাদা কাগজে ব্যবস্থাপত্র লিখে দিচ্ছিলেন। এ সময় ওই ভুয়া চিকিৎসকের কাছে সেবা নিতে যাওয়া দুজন রোগীর চিকিৎসককে সন্দেহ হলে তারা বিষয়টি থানা পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করে। এরই প্রেক্ষিতে ওই ফার্মেসিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ভুয়া চিকিৎসককে দণ্ড প্রদান করা হয়।

তবে শুক্রবার রাতের মধ্যে জরিমানার টাকা পরিশোধ করতে না পারলে শনিবার (১৭ আগস্ট) ভুয়া চিকিৎসককে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হবে বলেও জানান ওসি।

আপনার মতামত লিখুন :