মামলা তুলে না নেয়ায় ছাত্রীকে গণধর্ষণ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, চুয়াডাঙ্গা
আসামি লাল্টু। ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম।

আসামি লাল্টু। ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম।

  • Font increase
  • Font Decrease

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় আসামিদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা তুলে না নেয়ায় গণধর্ষণের শিকার হয়েছে এক মাদরাসা ছাত্রী (১৩)।

রোববার (১৮ আগস্ট) দুপুরে তিনজনের নাম উল্লেখ করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন ওই মাদরাসা ছাত্রীর বাবা আনারুল। তিনি আলমডাঙ্গা উপজেলার নতিডাঙ্গা আবাসন এলাকার বাসিন্দা।

জানা গেছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার নতিডাঙ্গা আবাসন এলাকার জয়নালের ছেলে লাল্টু (৩৫), মৃত সভা ভোরামীর ছেলে শরীফুল (৪০) ও মিলনের ছেলে রাজু (৩০) প্রায়ই ওই ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করত। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা শীলা খাতুন বাদী হয়ে চুয়াডাঙ্গা আদালতে মাসখানেক আগে শ্লীলতাহানির অভিযোগে একটি মামলা করেছিলেন। তবে মামলা তুলে না নিলে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হবে বলে বারবার হুমকি দিয়েছিল আসামিরা। এর জের ধরেই শনিবার (১৭ আগস্ট) মধ্য রাতে ওই ছাত্রীকে তার বাড়ির পাশে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা-মাকেও পিটিয়ে আহত করা হয়।

আলমডাঙ্গা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মাহাবুবুর রহমান জানান, এ ঘটনায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে আজ দুপুরে লাল্টু নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

আপনার মতামত লিখুন :