চুয়াডাঙ্গায় স্বর্ণ পাচার মামলায় ২ জনের যাবজ্জীবন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, চুয়াডাঙ্গা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চুয়াডাঙ্গায় স্বর্ণ পাচার মামলায় দুই চোরাকারবারিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।

আসামিদের অনুপস্থিতিতে সোমবার (১৯ আগস্ট) বিকেলের পর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহা. রবিউল ইসলাম এ রায় ঘোষণা করেন।

যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্তরা হলেন- ঢাকার কেরাণীগঞ্জের রামেরকান্দা গ্রামের মহি উদ্দিন খানের ছেলে নুরুল ইসলাম ও মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং উপজেলার কলুরগা গ্রামের ব্যাপারি পাড়ার নুরুল ইসলাম ব্যাপারির ছেলে মাসুদ রানা।

মামলার বিবরণ সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ৭ জুন সকালে চুয়াডাঙ্গার দর্শনা জয়নগর চেকপোস্ট দিয়ে দুই জন চোরাকারবারি ভারতে স্বর্ণ পাচারের জন্য অবস্থান করছে এমন সংবাদ পেয়ে যশোর বেনাপোল শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত সার্কেলের একটি টিম অবস্থান নেয়। এসময় দুই চোরাকারবানি নুরুল ইসলাম ও মাসুদ রানাকে আটক করে।

পরে তাদের কাছে থাকা দুটি ট্রলি ব্যাগ তল্লাশি করে বিশেষ কায়দায় লুকিয়ে রাখা অবস্থায় প্রায় আড়াই কেজি স্বর্ণ আটক করে।

একই দিন যশোর বেনাপোল শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত সার্কেলের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা সাজিবুল ইসলাম দুই জনকে আসামি করে দামুড়হুদা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আশরাফুল ইসলাম মামলার তদন্ত শেষে ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই দুই জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

৮ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে সোমবার চুয়াডাঙ্গা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহা. রবিউল ইসলাম আসামীদের অনুপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। পালাতক আসামিরা গ্রেফতারের পর থেকে সাজা কার্যকর হবে। আটক স্বর্ণ রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করার আদেশ দেন আদালত।

উচ্চ আদালত থেকে আসামী নুরুল ইসলাম জামিন নেওয়ার পর থেকে পালাতক রয়েছেন। আর মাসুদ রানা রায় ঘোষণার দিন অনুপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :