বিদ্যালয়ের মাঠ ভরাট, খুশির চেয়ে দুশ্চিন্তা বেশি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, চাঁদপুর
হাজীগঞ্জ উপজেলার মোহাম্মদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম।

হাজীগঞ্জ উপজেলার মোহাম্মদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম।

  • Font increase
  • Font Decrease

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার মোহাম্মদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ১৯৩৫ সালে স্থাপিত হয়। ২০১৯ সালে এই বিদ্যালয়ের মাঠ ভরাট করা হয়। তবে স্কুল আর এই মাঠের মাঝখান দিয়ে এখন উপজেলার ৯নং ও ১০নং গন্ধর্ব্যপুর ইউনিয়নের প্রধান সড়ক চলে গেছে।

সরেজমিনে রোববার (২৫ আগস্ট) দুপুরে ওই বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা গেছে, বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নতুন মাঠে খেলাধুলা করছে। আবার কেউ ছোটাছুটি করছে। ছোটাছুটি করতে করতে কেউ কেউ মাঠ পার হয়ে সড়কের উপরে উঠে যাচ্ছে। সড়কটিতে দৈনিক শতাধিক অটোচালিত সিএনজি, ট্রাক, মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন যানবাহন চলছে। এতে যেকোনো সময় ঘটতে পারে দুর্ঘটনা। তাই মাঠ ভরাট করায় খুশির চেয়ে দুশ্চিন্তা যেন বেশি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/25/1566742336561.jpg

জানা গেছে, বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৫ শতাধিক। শিক্ষক রয়েছেন ৮ জন।

ওই বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী মাহমুদুল হাছান ও উম্মে হাবিবা বলে, ‘আমরা নতুন মাঠ পেয়ে খুশি। মাঠে আমরা ক্রিকেট, ফুটবলসহ বিভিন্ন খেলা খেলি। তবে সড়ক পার হয়ে মাঠে যেতে হয়। আমাদের সহপাঠীরা মাঝে মাঝে সিএনজির সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে আহত হয়।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/25/1566742354104.jpg

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু সাঈদ ও সিনিয়র শিক্ষক মোহাম্মদ কামাল হোসাইন জানান, ৮৪ বছর পর বিদ্যালয়ে মাঠ হয়েছে। আর মাঠ ভরাট হয়েছে একমাস হলো। এরই মধ্যে তিনজন শিক্ষার্থী সিএনজির সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে আহত হয়েছে। এখন মাঠের পশ্চিম পাশ দিয়ে সড়কটি নেয়া প্রয়োজন। আর বিদ্যালয়ে সীমানা প্রাচীর থাকলে তারা ঝুঁকিমুক্ত থাকবেন।

হাজীগঞ্জ উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা নাছরিন সুলতানা জানান, বিদ্যালয়ে মাঠ হয়েছে। এখন একটি ভবনও প্রয়োজন। সড়কটি পরিবর্তন হলে নতুন ভবন করতে সুবিধা হবে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে বিষয়টি তুলে ধরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :