প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত কারিগররা

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, পীরগাছা (রংপুর)
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে রংপুরের পীরগাছায় প্রতিমা তৈরির ধুম পড়েছে। মৃৎশিল্পীদের (কারিগর) দম ফেলানোর ফুসরত নেই। ইতোমধ্যেই প্রতিমার মাটির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এরপর শুরু হবে রঙ ও সাজসজ্জার কাজ।

এ অঞ্চলে প্রতিমা তৈরির কারিগররা মূলত গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ফলগাছা (ভাটারপাড়) গ্রামের বাসিন্দা। এসব কারিগররা রংপুরের পীরগাছার বিভিন্ন মন্দিরের জন্য প্রতিমা তৈরি করছেন। কেউ কেউ মন্দিরের ভেতরে প্রতিমা তৈরি করছেন। আবার কিছু কারিগর সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় কারখানা তৈরি করে পীরগাছাসহ আশপাশের এলাকায় প্রতিমা বিক্রি করছেন।

রোববার (১ সেপ্টেম্বর) সকালে সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, প্রতিমা তৈরির কাজে ব্যস্ত মৃৎশিল্পী (কারিগর) প্রদীপ কুমার (৪২)। সেখানে পীরগাছা উপজেলা ও আশপাশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা লোকজন প্রতিমার দরদাম করছেন। কেউ অগ্রিম দিচ্ছেন। আবার অনেকে পূর্বেই দরদাম ঠিক করে প্রতিমা তৈরির কাজ করাচ্ছেন। বাঁশ-কাঠ আর কাদা মাটি দিয়ে তৈরি প্রতিমাগুলো দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন সনাতন ধর্মের লোকজন।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে প্রতিমা তৈরি করছেন প্রদীপ কুমার। তিনি জানান, দুই মাস আগে থেকে প্রতিমা তৈরির কাজ শুরু করেছেন তিনি। এ পর্যন্ত ১৬টি প্রতিমা সেট তৈরি করেছেন। প্রতি সেটে দুর্গার সঙ্গে রয়েছে অসুর, সিংহ, মহিষ, গণেশ, সরস্বতী, কার্তিক ও লক্ষ্মী প্রতিমা।

তিনি আরও জানান, একটা প্রতিমা সেট তৈরি করতে খরচ হয় ১২ থেকে ১৪ হাজার টাকা। এখন বাঁশ, কাঠ, কাদা মাটিসহ প্রতিমা তৈরির উপকরণের দাম অনেক বেশি। তাই প্রতি সেট প্রতিমা তৈরিতে খরচ একটু বেশিই হচ্ছে। এখন ১৬ থেকে ২০ হাজার টাকায় প্রতিমা সেট বিক্রি হচ্ছে। বিক্রির পর মণ্ডপে গিয়ে প্রতিমাগুলোকে আবার তুলির আঁচড়ে রঙিন করে সাজিয়ে দিয়ে আসতে হবে। কিন্তু প্রতিমা সেট বিক্রি করে তেমন লাভ হচ্ছে না।

পীরগাছা উপজেলার কান্দি কেন্দ্রীয় মন্দিরের সভাপতি প্রশান্ত কুমার মংলু জানান, প্রতি বছর ধর্মীয় সম্প্রতি বজায় রেখে সার্বজনীন দুর্গা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। এ উৎসবকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যেই মণ্ডপ কমিটিগুলো এখন প্রতিমা স্থাপনের কাজ করছে। এ লক্ষ্যেই এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে প্রতিমা কারিগররা।

আপনার মতামত লিখুন :