'অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীদের ছাড় দেওয়া হবে না'

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, টাঙ্গাইল
সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী, ছবি: সংগৃহীত

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেছেন, ‘অবৈধভাবে নদী থেকে বালু উত্তোলনকারীদের কোনোভাবেই ছাড় দেওয়া হবে না। তাদের কোনো দলীয় পরিচয় বিবেচনা করা হবে না।’

সোমবার (২ জুলাই) টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বংশাই নদীর লতীফপুর ইউনিয়নের যোগীরকোফা, ফতেপুর ইউনিয়নের থলপাড়া, ফতেপুর, সুতানরি, বানকাটা পাড়দিঘী ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তি‌নি।

তিনি বলেন, ‘মির্জাপুরের নদী ভাঙন কবলিত এলাকার জন্য ১১৫ কোটি টাকার ডিপিটি প্রকল্প এবং ৪শ কোটি টাকা ব্যয়ে বংশাই নদীতে ড্রেজিং করা হবে। যে এলাকা বেশি ভাঙন কবলিত সেখানে দ্রুত ডাম্পিং শুরু করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।'

উপমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার নদী ভাঙন এলাকার দিকে বিশেষ নজর দিয়েছে। ভাঙন কবলিত এলাকার মানুষের কথা চিন্তা করে বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে র‌য়ে‌ছে ডিপিটি, ডাম্পিং এবং নদী ড্রেজিং।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল-৭ মির্জাপুর আসনের এমপি মো. একাব্বর হোসেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী উকিল বিশ্বাস, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম, মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আব্দুল মালেক, সহকারী পুলিশ সুপার মির্জাপুর সার্কেল দিপঙ্কর ঘোষ।

আপনার মতামত লিখুন :