সাবেক পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে স্ত্রীকে কোপানোর অভিযোগ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, লক্ষ্মীপুর
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে যৌতুক না পেয়ে স্ত্রী সালমা আক্তারকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে সাবেক পুলিশ সদস্য আবুল কাশেমের বিরুদ্ধে।

কোপানোর অভিযোগে স্বামীসহ চারজনকে আসামি করে সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন সালমা।

বাদীর আইনজীবী সৈয়দ মোহাম্মদ শামছুল আলম জানান, ট্রাইব্যুনালের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিচারক মো. শাহেনূর মামলাটি আমলে নিয়েছেন এবং সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রামগতি আদালতের বিচারক কাজী সোনিয়া আক্তারকে মামলাটি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। আগামী ১৯ নভেম্বর তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করতে বলা হয়েছে।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- সাইফুল ইসলাম, নিজাম উদ্দিন ও মো. ফয়েজ আহম্মদ। তারা রামগতি উপজেলার চরপোড়াগাছা গ্রামের বাসিন্দা।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চরপোড়াগাছা গ্রামের মৃত শাহে আলমের ছেলে আবুল কাশেমের সঙ্গে প্রায় ১০ বছর আগে সালমা আক্তারের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে দুই ছেলে রয়েছে। বিয়ের পর কৌশলে সালমার কাছ থেকে কাশেম তিন লাখ ২০ হাজার টাকা ধার নেন। সে টাকা তিনি এখনও পরিশোধ করেননি। হঠাৎ গত ২৯ আগস্ট সালমার কাছে আরো পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন কাশেম। এ টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় সালমাকে দা দিয়ে কুপিয়ে জখম করেন কাশেম। এতে তাকে সাহায্য করেন সাইফুল, নিজাম ও ফয়েজ। পরে সালমাকে রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

মামলার বাদী সালমা বলেন, ‘যারা আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়েছে, তাদের চুরির মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। এরই মধ্যে দু’জনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। পুলিশকে প্রভাবিত করে বেপরোয়া কর্মকাণ্ড চালাচ্ছেন কাশেম।’

আপনার মতামত লিখুন :