ইউক্যাশে হবে ট্রাফিক কেসের জরিমানা পরিশোধ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়িন্টিফোর.কম, লালমনিরহাট
ইউক্যাশের মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে ট্র্যাফিক কেসের জরিমানা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ইউক্যাশের মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে ট্র্যাফিক কেসের জরিমানা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশ পুলিশের রংপুর রেঞ্জের উপ মহাপরিদর্শক(ডিআইজি) দেবদাস ভট্টাচার্য্য বিপিএম বলেছেন, ‘প্রথমবারের মত লালমনিরহাটে ৭টি ইউক্যাশ পয়েন্ট চালু করা হয়েছে। বিভাগীয় শহরে আগেই ই-ট্রাফিক সেবা চালু হলেও জেলা শহরে এটাই প্রথম চালু করা হয়। ট্রাফিক কেস দিলেই ইউক্যাশে জরিমানার অর্থ জমা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মিলবে কাগজপত্র।’

বৃহস্পতিবার (০৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রংপুর বিভাগে প্রথম বারের মত লালমনিরহাটে ই-ট্রাফিক সেবার উদ্বোধন অনুষ্ঠানের শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ডিআইজি এসব বলেন।

তিনি আরো বলেন, ‘ইউক্যাশে জরিমানার অর্থ জমা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মিলবে কাগজপত্র। জরিমানা দিতে দূর থেকে আর যেতে হবে না ট্রাফিক অফিসে। ট্রাফিক অফিসে দাঁড়িয়ে থাকার দিন শেষ।’

ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য বলেন, ‘আগে ঢাকার কোন যানবাহনের লালমনিরহাটে এসে ট্রাফিক কেস হলে নির্দিষ্ট দিনক্ষণে ওই যানবাহনের মালিককে আবারো জরিমানা পরিশোধ ও কাগজপত্র নিতে লালমনিরহাট ট্রাফিক অফিসে আসতে হত। এ জরিমানা পরিশোধ করতে সময় ও অর্থ দুটোই অপচয় হত মালিকের। এরপরও দীর্ঘ লাইনে ট্রাফিক অফিসে দাঁড়িয়ে থাকতে হত। তাই ট্রাফিক সেবা হাতের কাছে পৌঁছে দিতে ই-ট্রাফিক সেবা চালু করা হয়েছে। এখন কোন যানবাহনের ট্রাফিকের মামলা হলে সাথে সাথে পাশের ইউক্যাশ পয়েন্টে তা পরিশোধ করলে তাৎক্ষনিকভাবে কাগজপত্র পাওয়া যাবে এবং জরিমানার অর্থও তাৎক্ষণিকভাবে রাজস্ব খাতে জমা হবে। এতে ভোগান্তি কমার পাশাপাশি ট্রাফিক পুলিশের অনিয়মের সুযোগও এতে বন্ধ হয়েছে।’

লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক পিপিএম-সেবা'র সভাপতিত্বে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি সিরাজুল হক, জেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি আব্দুল হামিদ বাবু, পুলিশ সুপার পদন্নতি প্রাপ্ত অতিরিক্ত পুলিশ এনএম নাসির উদ্দিন ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ সার্কেল) হাসান ইকবাল চৌধুরী প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :