বাঞ্ছারামপুরে প্রতিপক্ষের গুলিতে যুবক নিহত

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের গুলিতে সুমন মিয়া (৩৫) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন।

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাত ১টার দিকে বাঞ্ছারামপুর উপজেলার সলিমাবাদ ইউনিয়নের তাতুয়াকান্দির পাইকারচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সুমন ওই গ্রামের মৃত মনু মিয়ার ছেলে। এ সময় একজন গুলিবিদ্ধসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন।

আহতরা হলেন-একই এলাকার কামরুজ্জামান (৩৭), আব্দুল আওয়াল (৬০), জালাল মিয়া (৪০), মনির হোসেন (৩৫) ও করিম (৪০)। তাদের চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় পুলিশ চারজনকে আটক করেছে। আটক ব্যক্তিরা হলেন শাহিদুল ইসলাম (৪০), রাজিব আহমেদ (১৮), আমির হোসেন, (৩০) ও বাবুল মিয়া (৪০)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জমিসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে সলিমাবাদ ইউনিয়নের তাতুয়াকান্দি গ্রামের ইকবাল হোসেন ও অলি মেম্বারের মধ্যে বিরোধ চলছে। এ নিয়ে ইকবাল গ্রাম ছেড়ে পার্শ্ববর্তী কুমিল্লা জেলার হোমনা উপজেলার ঘাগুটিয়া গ্রামে গিয়ে বসবাস করছেন। সোমবার রাতে ইকবাল ও তার সহযোগীরা অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাতুয়াকান্দির পাইকারচর গ্রামে গিয়ে প্রতিপক্ষের সমর্থক দানা মিয়ার বাড়িতে হামলা করেন। এ সময় তারা ওই বাড়িতে থাকা সুমন ও আওয়াউলকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি করেন। বাকিদের টেঁটা ও দা দিয়ে কুপিয়ে জখম করা হয়। পরে আহতদের উদ্ধার করে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসক সুমনকে মৃত ঘোষণা করেন।

বাঞ্ছারামপুর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন চৌধুরী বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে জানান, খবর পেয়ে সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ইকবাল মিয়ার পক্ষের চারজনকে আটক করা হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহতের পরিবারের লোকজন মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :