প্র্যাংক ভিডিও’র কারণে ১৫ মাসের জেল

টেক ডেস্ক, বার্তা২৪
অভিযুক্ত ইউটিউব তারকা, ছবি: সংগৃহীত

অভিযুক্ত ইউটিউব তারকা, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইউটিউবে এখন বিভিন্ন ধরনের ভিডিও বা ‘প্র্যাংক’ বা মজার উদ্দেশ্য বানানো কিছু ভিডিও দেখা যায়। তবে এসব প্র্যাংক ভিডিও অনেক সময় অন্যদের জন্য বেদনার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তেমনি স্প্যানিশ এক ব্লগার কিশোর একজন গৃহহীন ব্যক্তিকে নিয়ে প্র্যাংক ভিডিও বানালে তাকে জেলে পাঠানো হয়।

নিউইয়র্কস টাইমসের রিপোর্টে বলা হয়, স্প্যানিশ এই ব্লগার কানগুহান রেন প্র্যাংক ভিডিও তৈরির নীতিমালা লঙ্ঘন করছে বলে তাকে জেলে পাঠানো হয়েছে।

আদালতের নির্দেশে রেন এর ইউটিউব চ্যানেলটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এবং আগামী ২০২৪ সালের আগে সে তার ইউটিউব চ্যানেল থেকে কোনো ভিডিও পোস্ট করতে পারবেন না।

তার এই ভিডিও বানানোর ফলে যে ব্যক্তি ভুক্তভোগী হয়েছেন তাকে ২২ হাজার ৪০০ মার্কিন ডলার ক্ষতিপূরণ হিসেবে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে স্প্যানিশ আদালত।

নিউইর্কস টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৫ মাসের জেল দেওয়া হয়েছে এই স্প্যানিশ কিশোরকে। যে ব্যক্তিকে নিয়ে প্র্যাংক ভিডিও করা হয়েছে সেই ব্যক্তির নাম গোর্জ এল, যিনি বার্সেলোনাতে আসার আগে একজন মেষপালক ছিলেন।

এই ভিডিওটিতে দেখা যায়, সে ওরিও বিস্কুটের মধ্য থেকে ক্রিম সরিয়ে সেখানে টুথপেস্ট দিয়ে দেয়। পরে সেই বিস্কুট গোর্জ নামের ঐ ব্যক্তিকে খেতে দেয়। এই ভিডিওটি পরবর্তীতে ইউটিউবে শেয়ার হলে তার বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

স্প্যানিশ দৈনিকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, রেন এই ভিডিও তৈরি করে ২ হাজার ২৪০ মার্কিন ডলার আয় করেন। কিন্তু এই সমালোচনার পরে তার চ্যানেল থেকে সে ভিডিও টি মুছে দেয় এবং ঐ ব্যক্তিকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে মাত্র ২৪ ডলার দেয়া হয়। যখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয় তখন সে আবার গোর্জকে গিয়ে ৩৩৬ ডলার সাহায্য করেন।

কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে ভিডিওটি গণমাধ্যমে এসে পড়লে তাকে আইনের আওতায় নেওয়া হয়।

সূত্র: বিবিসি

আপনার মতামত লিখুন :