Barta24

সোমবার, ১৫ জুলাই ২০১৯, ৩১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

নাম্বার গোপন রেখে রিচার্জ সুবিধা নিয়ে রবি'র বিশেষ প্যাকেজ

নাম্বার গোপন রেখে রিচার্জ সুবিধা নিয়ে রবি'র বিশেষ প্যাকেজ
ছবিঃ বার্তা২৪.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশে বিপুল পরিমাণ নারী জনগোষ্ঠী কে উন্নয়নের মূল ধারায় যুক্ত করতে রবি নিয়ে এসেছে বিশেষ প্যাকেজ ‘ ইচ্ছেডানা’। নিরাপত্তা ও সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে নারীদের জন্য চালু হওয়া এই প্যাকেজটি রবির যে কোন গ্রাহক বিনামূল্যে *১২৩*৮০# কোডটি ডায়াল করে এই সেবার জন্য নিবন্ধিত হতে পারবেন।থাকবে নাম্বার গোপ্ন রেখে ১২ ডিজিটের একটি ডামি নাম্বার দিয়ে যেকোন রিটেল পয়েন্ট থেকে রিচার্জ সুবিধা। 
শনিবার (১৫ জুন) রাজধানীর গুলশানে রবির কর্পোরেট অফিসে সেবাটির উদ্বোধন করা হয়। এসময় রবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, চিফ কমার্শিয়াল অফিসার প্রদীপ শ্রীবাস্তব , বিশেষ অতিথি হিসাবে চর্ম বিশেষজ্ঞ ও শিল্পী ঝুমু খান সহ কোম্পানির উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে মাহতাব উদ্দিন বলেন, টেকসই উন্নয়নের অন্যতম একটি স্তম্ভ হচ্ছে নারীদেরকে উন্নয়নের মূল ধারায় যুক্ত করা ।সেই কথা মাথায় রেখে নারীদের জন্য তৈরি এই প্যাকেজ রবি একটি প্রয়াস মাত্র।
তিনি আরো বলেন ডিজিটাল জীবনধারা বিকাশের সাথে মোবাইল নম্বর এখন কোন ব্যক্তি সনাক্তকরণের মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিভিন্ন ডিজিটাল জীবনধারা ভিত্তিক সেবা থেকে শুরু করে সরকারি সেবা গ্রহণে মোবাইল নাম্বারে বিকল্প নেই।
এর মাধ্যমে নারীরা তাদের পূর্ব নির্বাচিত তিনটি নম্বরে জরুরি প্রয়োজনে সাথে সাথে তাদের বর্তমান অবস্থান জানাতে পারবেন সেটি গ্রহণ করতে *৫৫৫# কোডটি ডায়াল করতে হবে । ফলে নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে যে সকল নারীরা ঘরের বাইরে যেতেও স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না তাদের জন্য এটি নিরাপত্তা বলয় তৈরি করে করবে এই সেবাটি।
এছাড়াও এই গ্রাহকরা প্রতি মাসে প্রয়োজনে দুইবার ১০ টাকা মিনিট বিনামূল্যে কথা বলার সুযোগ পাবেন ।সেবাটি গ্রহণের পূর্বে ইচ্ছেডানা ব্যবহারকারীদের ৬৫ টাকার ভয়েস কল সেবা গ্রহণ করতে হবে।
প্যাকেজটির অন্যতম সুবিধা হচ্ছে নাম্বার গোপন রেখে রিচার্জ করার সুবিধা । এর ফলে যেকোনো রিটেল পয়েন্ট থেকে নারীরা নাম্বার গোপন রেখে ১২ ডিজিটের ডামি নাম্বার দিয়েই তাদের মোবাইল ব্যালেন্স রিচার্জ করতে পারবেন। ।
নিবন্ধিত গ্রাহকরা প্রথম দু মাস যে কোন নাম্বারে, এবং একটি নাম্বারে আজীবন ৫০ পয়সা রেটে দিয়ে কথা বলার সুযোগ পাবেন, সাথে থাকবে ১৭ টাকায় ১ জিবি ফেসবুক ব্যবহারের সুবিধাও।

আপনার মতামত লিখুন :

ফেসবুকের ওকুলাস বাজারের চাহিদা মেটাতে সক্ষম নয়

ফেসবুকের ওকুলাস বাজারের চাহিদা মেটাতে সক্ষম নয়
ফেসবুকের ভিআর ওকুলাস, ছবি: সংগৃহীত

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া কোম্পানিগুলো শুধুই অ্যাপ ভিত্তিক সার্ভিসের বাইরেও এখন বিভিন্ন ডিভাইস নিয়ে কাজ করছে। বলতে গেলে অনলাইনের বাইরে গিয়ে তারা এখন প্রযুক্তি নির্মাতাদের দলে যোগ দিচ্ছে অধিক মুনাফা লাভের আশায়।

তেমনি ফেসবুকের তৈরি ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) ওকুলাস বাজারে  ছাড়ে প্রতিষ্ঠানটি। কিন্তু গেমিংয়ের বাজারের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে প্রস্তুত নয় ফেসবুকের এই ভার্চুয়াল রিয়েলিটি।

সিএনবিসি’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশেষ করে গেমিংয়ের বাজার ধরতেই ফেসবুক তাদের ভিআর ওকুলাস বাজারে ছাড়ে। কিন্তু ওকুলাসের সহ প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক ম্যাকাউলি মনে করেন বর্তমান বাজার ধরতে এটি যথেষ্ঠ নয়।

তিনি বলেন, যখন একজন ইউজার ভিআর হেডসেট পরে গেম খেলবেন কিন্তু অপর প্রান্তে থাকা তার বন্ধু দ্বিমাত্রিক (২ডি) মুডে খেলবে। যার মধ্যে কোনো সমন্বয় থাকবে না। ফলে এই ভিআর গেমিংয়ের বাজারে চাহিদা মেটাতে পারবে না।

গত ২০১৭ সালে ফেসবুক ‘ওকুলাস গো’ বাজারে ছাড়ে। যার বাজারমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছিল ১৯৯ মার্কিন ডলার। মার্কেট রিসার্চ সুপার ডাটার মতে, ২ মিলিয়ন ইউনিট বিক্রি হয়েছিল ওকুলাস গো।

অন্যদিকে এবছরের মে মাসে ওকুলাস কুয়েস্ট বিক্রি হয়েছিল ১ মিলিয়ন ইউনিট এবং ওকুলাস রিফট ৫ লাখ ৪৭ হাজার ইউনিট।

তবে সম্প্রতি বাজারে আসা ‘ওকুলাস রিফট এস’ পিসি ভার্সনের জন্য অবমুক্ত করা হয়। যার বাজারমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩৯৯ মার্কিন ডলার। কিন্তু ম্যাকাউলি মনে করেন বাজারের অন্যান্য ভিআর হেডসেটের সঙ্গে পাল্লা দিতে পারবে ফেসবুকের ওকুলাস।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

ভুয়া অ্যাকাউন্টে সয়লাব ইনস্টাগ্রাম

ভুয়া অ্যাকাউন্টে সয়লাব ইনস্টাগ্রাম
ভুয়া অ্যাকাউন্টে সয়লাব ইনস্টাগ্রাম, ছবি: সংগৃহীত

ফেসবুকের আওতাধীন ফটো শেয়ারিং অ্যাপ ইনস্টাগ্রামে ১৬ মিলিয়ন ভুয়া অ্যাকাউন্ট থেকে ভারতের ইউজারদেরকে প্রভাবিত করা হয়েছে বলে গবেষণায় উঠে এসেছে।

মূলত অনলাইনে টার্গেট মার্কেটিংয়ের কৌশল হিসেবে তারা এসব ভুয়া অ্যাকাউন্ট থেকে গ্রাহকদেরকে প্রভাবিত করছে। ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ার এবং এঙ্গেজমেন্ট বাড়াতে তারা আর্টিফিশিয়াল বুস্টিং ‘ভ্যানিটি মেট্রিক্স’ ব্যবহার করছে।

সুইডিশ ভিত্তিক গবেষণাকারী প্রতিষ্ঠান হাইপঅডিটর সম্প্রতি বিশ্বের ৮২ টি দেশের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট পর্যালোচনা করেছে।

সমীক্ষায় দেখা যায়, সবচেয়ে বেশি ভুয়া অ্যাকাউন্ট রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। এরমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে ৪৯ মিলিয়ন, ব্রাজিলে ২৭ মিলিয়ন এবং ভারতে ১৬ মিলিয়ন ভুয়া অ্যাকাউন্ট রয়েছে।

ইনস্টাগ্রামে ভুয়া অ্যাকাউন্টের প্রভাবে বিজ্ঞাপনদাতাদেরকে ৭৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচ গুনতে হয়েছে। বিশ্বব্যাপী এই গোচ্চার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে প্রায় ১.৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

এ গুড কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অ্যান্ড্রেস এঙ্কারলিড বলেন, ‘বর্তমান বাজারে টিকে থাকতে প্রতিষ্ঠানগুলো অনলাইন বিজ্ঞাপনদাতাদের পেছনে টাকা ব্যয় করছেন। তারা ভাবছেন এর বিনিময়ে বিজ্ঞাপনদাতারা অনলাইনে ‘রিয়েল অ্যাকাউন্টের’ সঙ্গে এঙ্গেজমেন্ট তৈরি করছেন। কিন্তু এর বেশির ভাগই ভুয়া অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে মানুষকে প্রভাবিত করা হচ্ছে।’

সোশ্যাল মিডিয়ার প্রভাব বিস্তারের সঙ্গে সঙ্গে ‘ইনফ্লুয়েন্সার মার্কেটিং’ নামের একটি গোষ্ঠীর আবির্ভাব হয়েছে। যারা ভুয়া অ্যাকাউন্ট তৈরি করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে এভাবে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন।

তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়া অ্যাকাউন্টের প্রভাব এবং অনলাইনে কোম্পানিগুলোর বিজ্ঞাপন দেওয়ার হিড়কি পড়ার কারণ হচ্ছে বিশ্বব্যাপী একটি বিশাল সংখ্যক মানুষ এসব প্লাটফর্মের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন।

প্রসঙ্গগত পরিসংখ্যান

ইনস্টাগ্রামে মাসিক ১০০ কোটি অ্যাক্টিভ ইউজার, ফেসবুকে ২.৩৮ বিলিয়ন অ্যাক্টিভ ইউজার, প্রতিদিন ১৬ মিলিয়িন মানুষ টুইটারে লগ-ইন করছেন। অন্যদিকে হোয়াটসঅ্যাপে শুধুমাত্র ভারতেই ৩০০ মিলিয়ন ইউজার রয়েছেন।

সূত্র: গ্যাজেটস নাও

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র