মার্কিন নির্বাচনে নতুন ভূমিকায় ফেসবুক

টেক ডেস্ক, বারতা২৪.কম
ভোটারদেরকে নিরুৎসাহিত করে এমন পোস্ট মুছে দিবে ফেসবুক, ছবি: সংগৃহীত

ভোটারদেরকে নিরুৎসাহিত করে এমন পোস্ট মুছে দিবে ফেসবুক, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক এখন নির্বাচনী প্রচারণার অন্যতম হাতিয়ার। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় ভোটারদেরকে বিভ্রান্ত করতে নেতিবাচক প্রচারণাই বেশি হয় ফেসবুকে। তাই এবার আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন (২০২০) এ ভোটারদেরকে নিরুৎসাহিত করে এমন পোস্ট মুছে দেবে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

রোববার (৩০ জুন) ফেসবুকের দ্বিতীয় নাগরিক অধিকার আইন অডিটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এই বিষয় নিশ্চিত করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

ফেসবুকের চিফ অপারেটিং অফিসার শ্রেয়াল স্যান্ডবার্গ বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন (২০২০) কে সামনে রেখে ফেসবুকে ‘না ভোট’ সম্পর্কিত যেকোনো প্রচারণা বন্ধে দৃঢ় প্রতশ্রুতিবদ্ধ ফেসবুক।

ফেসবুকে ভোটারদের হয়রানি এবং বিভ্রান্তিমূলক পোস্ট, ভোটের দিন, তারিখ, ভোট কেন্দ্র এবং ফেক নিউজের ছড়াছড়ি বন্ধ করতে বেশকিছু নীতিমালা নেয় প্রতিষ্ঠানটি। ফেসবুক বলছে, প্রতিহিংসা, বিদ্বেষপরায়ণ নির্বাচনী প্রচারণাগুলো ফেসবুক নিজে থেকেই মুছে দিবে।

এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন (২০১৬) তে ফেসবুক ব্যবহার করে ভোটারদেরকে বিভ্রান্ত করে হয়েছে বলে অভিযোগ আছে। মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগ জানায়, নির্বাচনে রাশিয়ান ভিত্তিক সাইবার সংস্থার প্রভাব ছিল। যা ডোনাল্ড ট্রাম্পকে জয়ী করতে বিশেষভাবে ব্যবহার করা হয়েছে।

ফেসবুকের পাবলিক পলিসির পরিচালক নেইল পোটস বলেন, ‘আমরা বিজ্ঞাপনের দিকে বিশেষভাবে নজর দিচ্ছি। কারণ এই বিজ্ঞাপনেই টার্গেট কনটেন্ট থাকে, যা ভোটারদেরকে ভুল পথে নিয়ে যায় এবং ভোট প্রদানে নিরুৎসাহিত করে।’

ব্রিনান সেন্টার ফর জাস্টিসের সিনিয়র কাউন্সিল আন ভেন্ডিওয়ালকার জানান, আফ্রিকান আম্রেরিকান মানুষদের কাছে ফেসবুক বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে বলা হয় নির্বাচন বয়কট করতে, তাদেরকে নিরুৎসাহিত করা হয়।

তবে নতুন এই ‘না ভোট’ পলিসি সিস্টেমটির কাজ এখনো চলছে, যা ভোট কেন্দ্র এবং নির্বাচন কমিশনের পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করবে। এই সিস্টেমটি শুধু যুক্তরাষ্ট্রে কার্যকর করা হবে।

সূত্র: রয়টার্স

আপনার মতামত লিখুন :