সোশ্যাল মিডিয়ার উন্নয়ন সাধনে চার্চের নীতিমালা প্রস্তাব

টেক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সাম্প্রতি বিভিন্ন ইস্যুতে সোশ্যাল মিডিয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর নৈতিক অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন ওঠেছে। তাদের নিয়ন্ত্রণহীনতার কারণে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মকে বলা হয় পাগলা ঘোড়া। কারণ যার লাগাম ক্ষোদ প্রতিষ্ঠানগুলোর হাতে নেই বলে মনে করা হয়। তাই এবার যুক্তরাজ্যে চার্চ কর্তৃক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো কিভাবে চলবে তার জন্য একটি গাইডলাইন বা নীতিমালা প্রকাশ করেছে।

সোমবার (১জুন) প্রকাশিত সংবাদ বিজ্ঞপতিতে বলা হয়, অনলাইনে অপব্যবহার এবং বিভ্রান্তিকর কনটেন্ট মোকাবিলার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ায় আরও বেশি ইতিবাচক পরিবেশ তৈরি করাই চার্চের উদ্দেশ্যে।

খৃষ্টান ধর্মজাচক জাস্টিন ওয়েলবি বলেন, ‘সোশ্যাল মিডিয়া আমাদের জীবনকে অনেক আধুনিক ও সহজ করে দিয়েছে। কিন্তু প্রতি মুহূর্তে অনলাইনে বিভিন্ন ভাবে আমরা ঘৃণা, সহিংসতা ছড়াচ্ছি কিন্তু কেউবা হয়ত ঠিক সেই সময়ে মানবতার আলো ছড়িয়ে ভালবাসার নতুন কোনো দিগন্ত উন্মোচন করছেন।’

চার্চের দেওয়া এসব নির্দেশনাগুলো জনগণের পতিক্রিয়ার উপর ভিত্তি করে অনুসরণ করা হবে। যার মধ্যে অপ্রত্যাশিত যেকোনো কনটেন্ট, ঘৃণাবাচক, বিদ্বেষ ছড়ানো কনটেন্টগুলো মুছে দেওয়া এবং সেই অ্যাকাউন্টটি ব্লক করে দেওয়ার কথাও বলা হয় সেই নীতিমালায়।

চার্চ বলছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক ভালো দিক রয়েছে কিন্তু আবার খারাপ দিকও রয়েছে। আর এসব মাধ্যমে কোন কিছু পোস্ট করার আগে অন্তত একবার হলেও আমাদের ভাবতে হবে, কি দিচ্ছি, কোথায় দিচ্ছি।

যুক্তরাজ্যের চার্চের ধর্মযাজক জন সেন্টামু বলেন, এই প্রযুক্তির দুনিয়ায় সবার জন্য সর্বোচ্চ শান্তি এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আমরা সোশ্যাল মিডিয়া কোম্পানিগুলোর সঙ্গে কাজ করতে চাই।

সূত্র: সিএনএন

আপনার মতামত লিখুন :