যৌন হয়রানি মোকাবিলায় নতুন ডিভাইস

টেক ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
যৌন উত্যক্তকারীকে চিহ্নিত করতে ডিভাইস,ছবি:সংগৃহীত

যৌন উত্যক্তকারীকে চিহ্নিত করতে ডিভাইস,ছবি:সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জাপানে গণপরিবহনে যৌন হয়রানি মোকাবিলার লক্ষ্যে দেশটির শাচিহাটা প্রযুক্তি ফার্ম ‘অ্যান্টি-গ্রপিং ডিভাইস’ নামে নতুন প্রযুক্তি আবিষ্কার করেছে। যা দিয়ে ভুক্তভোগী তার আক্রমণকারীকে ‘অদৃশ্য কালির স্ট্যাম্প’ দিয়ে চিহ্নিত করতে পারবে।

দোষীকে চিহ্নিত করতে অদৃশ্য কালির স্ট্যাম্পে একটি হাতের ছাপ দেওয়া হবে। যা খালি চোখে দেখা যাবে না। পরবর্তীতে যারা চিহ্নিত হয়েছে প্রশাসন তাদের শনাক্ত করতে সেই স্থানে নীল আলো ফেলে দেখা যাবে।

শাচিহাটা ফার্ম জানায়, তারা অপরাধ দমনে কাজ করতে চায়। তাই গণপরিবহনে যৌন হয়রানির মতো অপরাধ বন্ধ করতে তারা এই নতুন প্রযুক্তি তৈরি করেছে।

তবে একটি যৌন নির্যাতন সংস্থা উদ্বিগ্ন প্রকাশ করে জানায়, এই প্রযুক্তিটি ক্ষতিগ্রস্তদের উপর একটি বাড়তি বোঝা চাপিয়ে দিতে পারে। অন্যদিকে প্রতিষ্ঠানগুলো এসব ভয় ভীতি প্রচারণা করে পণ্য বিক্রি করে বিশাল মুনাফা অর্জন করবে।

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, সীমিত পরিসরে ৫০০ টি ‘অ্যান্টি-গ্রপিং ডিভাইস’ ছাড়লে তা ৩০ মিনিটের মধ্যে বিক্রি হয়ে যায়।

সম্প্রতি জাপানে স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে যৌন হয়রানির দায়ে সন্দেহভাজন একটি গ্রুপের পিছনে দুজন জাপানি স্কুলছাত্রী ধাওয়া করার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। কিন্তু পরবর্তীতে তারা আর সেই অভিযুক্তদের শনাক্ত করতে পারেনি।

মূলত, এরপর মে মাসে সংস্থাটি দোষীদের চিহ্নিত করতে প্রথম স্ট্যাম্প তৈরির পরিকল্পনা ঘোষণা করেছিল।

শাচিহাটার একজন মুখপাত্র টুইট বার্তায় বলেন, ‘এই ডিভাইসটি যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে একটি ক্ষুদ্র পদক্ষেপ।’

টোকিও মেট্রোপলিটনের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৭ সালে যৌন হয়রানির ২,৬২০ টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। যার বেশির ভাগই ট্রেন স্টেশন এবং বাস স্ট্যান্ডে সংগঠিত হয়েছে।

সূত্র: বিবিসি

আপনার মতামত লিখুন :