সাদুল্লাপুরে দুধের বাজার ক্রেতা শূন্য



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, গাইবান্ধা
ক্রেতা না থাকায় অলস সময় পার করছেন বিক্রেতারা / ছবি: বার্তা২৪

ক্রেতা না থাকায় অলস সময় পার করছেন বিক্রেতারা / ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার জামালপুরের নাগবাড়ীতে দুধের বাজার ক্রেতা শূন্য হয়ে পড়েছে। পানির দামে বিক্রি করতে চাইলেও ক্রেতাদের মধ্যে নেই তেমন আগ্রহ। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে বিপাকে পড়েছেন গৃহপালিত গাভীর মালিকরা।

রোববার (৯ জুন) বিকেলে নাগবাড়ী বাজারে দুধ বিক্রি করতে আসা শহিদুল ইসলাম বার্তা২৪.কমকে জানান, সাদুল্লাপুর উপজেলা জামালপুর ইউনিয়নে শত শত দুগ্ধ খামারি ছাড়াও প্রায় প্রতিটি পরিবারে দেশি-বিদেশি জাতের গাভী পালন করা হয়। নিজেদের চাহিদা মিটিয়ে বাজারজাত করে থাকেন। প্রতি কেজি দুধ ৭০ থেকে ৬৫ টাকা দামে বিক্রি করা হয়।

তিনি আরও জানান, কিন্তু গত কয়েক দিনে হঠাৎ প্রতি কেজি ৪০ থেকে ৩৫ টাকা দামে বিক্রি করতে হচ্ছে দুধ। এভাবে দুধের দাম কমে যাওয়া লোকশানের হিসাব কষতে হচ্ছে বিক্রেতাদের।

আরেক দুধওয়ালা নুরু মন্ডল বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘আমি বিদেশি জাতের দুটি গাভী পালি। দৈনিক প্রায় ১০ কেজি দুধ দেয়। উদপাদিত এসব দুধ স্থানীয় ব্র্যাক চিলিং সেন্টারে বিক্রি করি। যা থেকে লাভের মুখ দেখেছি। ঈদের কারণে সেন্টারটি বন্ধ থাকায় এলাকার বাজারে দুধ বিক্রি করতে হচ্ছে। ফলে উৎপাদনের চেয়ে চাহিদা কম হওয়ায় প্রতি কেজি দুধ ৩৫ থেকে ৪০ টাকা দরে বিক্রি করতে হচ্ছে।’

ক্রেতা নজির হোসেন বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘বাড়িতে গাভী না থাকায় প্রতিদিন দুধ কিনে খেতে হয়। সপ্তাহখানেক আগে বেশি দাম দিয়ে দুধ কেনা হলেও এখন অনেকটাই কম দামে কিনতে পারছি।’