পুলিশের চোখে গুঁড়া মরিচ দিয়ে অস্ত্র ছিনতাই!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, পটুয়াখালী
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পটুয়াখালীর বাউফলের নাজিরপুর ইউনিয়নের বড় ডালিমা গ্রামে জমির বিরোধ নিয়ে সৃষ্ট সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে ২০ রাউন্ড গুলিসহ পুলিশের পিস্তল ছিনিয়ে নিয়েছে এক দুর্বৃত্ত।

সোমবার (২৪ জুন) সকাল সাড়ে ৮টায় ছিনতাই হওয়া গুলিসহ পিস্তলটি দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ওই দুর্বৃত্তর বাড়ির একটি নারিকেল গাছ থেক উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, নাজিরপুর ইউপির বড় ডালিমা গ্রামের হাকিম হাওলাদার গংদের সঙ্গে একই বাড়ির কামাল হাসানের গংদের দীর্ঘদিন জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। সোমবার সকালে ওই জমিতে কামাল হাসানের গংরা প্রায় ২৫ থেকে ৩০ জন লোক নিয়ে ট্রাক্টর দিয় জমি চাষ করতে যান। হাকিম হাওলাদার গংরা জমি চাষে বাধা দিতে গেলে তাদের জমির কাছে না যাওয়ার জন্য হুমকি দেওয়া হয়। হাকিম হাওলাদার এ ঘটনায় বাউফল থানায় খরব দেন। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে কামাল হাসানের পক্ষরে ফারুক হাওলাদারের স্ত্রী খাদিজা বেগম পুলিশের চোখে মরিচের গুঁড়া ছিটিয়ে দেন। এরপর কামাল হাসানের গংয়ের একজন ফিরোজ হাওলাদার মাঈনুদ্দিন নামের এক সহকারী উপপরিদর্শকের (এএসআই) কোমরে থাকা ১০ রাউন্ড গুলিসহ পিস্তল ছিনিয়ে নিয় যান খাদিজা বেগম।

এ ঘটনায়ে বাউফল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে নামে। পরে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ফিরোজের বাড়ির একটি নারিকেল গাছ থেক গুলি ও পিস্তল উদ্ধার করা হয়। 

এদিকে, জমির বিরোধে পুলিশের সামনে চলা সংঘর্ষে উভয় পক্ষর ১৬ জন আহত হন এবং সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে তিন পুলিশ সদস্যও আহত হন। আহতরা হলেন- সরাজ হাওলাদার(৬০),আবু বকর(২৫), মাকসুদা বগম(৩৫) সহিদুল(১৮), বিউটি বগম(৪৫), হালিম হাওলাদার(২০),অলিল(১৫), মনায়ারা(৭০), নাজমা(৩৫), ইমরান(২০), কামাল(৪৫), আলম(৫২), মকবুল(৬০), দুলাল(৩৫), নিলুফা(৪০)এবং নূরভানু(৫৫)। এদের মধ্যে ১১ জনকে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়ছে এবং চারজনক গুরুতর জখম অবস্থায় বরিশাল শের-ই বাংলা মডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানা হয়েছ। অন্যদিকে আহত পুলিশ সদস্যদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। 

ওসি খদাকার মাস্তাফিজুর রহমান জানান, অস্ত্র ছিনতাইয়ের ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

আপনার মতামত লিখুন :