আপিলেও মনোনয়নের বৈধতা পেলেন না হাওলাদার

জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদা। ছবি: সংগৃহীত

পটুয়াখালী-১ আসন থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার। তবে ঋণখেলাপি অভিযোগে তার মনোনয়ন ফরম বাতিল করে দেয় জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা। পরে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আপিল করেও মনোনয়নের বৈধতা পাননি তিনি।

শুক্রবার (৭ ডিসেম্বর) অস্থায়ী এজলাসে আপিলের শুনানি শেষে তার মনোনয়ন অবৈধ বলে ঘোষণা করে ইসি। এর আগে গত ২ ডিসেম্বর মনোনয়ন যাচাই-বাছাই শেষে ঋণখেলাপি হওয়ায় রুহুল আমিন হাওলাদারের মনোনয়ন বাতিল করা হয়। নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আপিল করেও মনোনয়নের বৈধতা পাননি তিনি।

এদিকে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ে রিটার্নিং অফিসারদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে দায়ের করা আপিল আবেদনের শুনানি দ্বিতীয় দিনের মতো শুরু হয়েছে।

শুক্রবার (৭ ডিসেম্বর) সকাল ১০টা ৪ মিনিটে নির্বাচন কমিশনের অস্থায়ী এজলাসে এ শুনানি শুরু হয়।

এর আগে গতকাল (বৃহস্পতিবার) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিলে ৮১ প্রার্থী বৈধতা পেয়েছেন। বাতিল বা খারিজ হয়েছে ৭৭ ও ২ জন প্রার্থীর আবেদন স্থগিত করা হয়েছে।

প্রথমদিনে ক্রমিক নম্বর অনুযায়ী ১ থেকে ১৬০ প্রার্থীর আবেদনের শুনানি করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। চারটি আপিল আবেদনের পক্ষে কেউ উপস্থিত না থাকায় তাদের শুনানি হয়নি। দ্বিতীয় দিন ৭ ডিসেম্বর ১৬১ থেকে ৩১০ পর্যন্ত এবং ৮ ডিসেম্বর ৩১১ ক্রমিক নম্বর থেকে ৫৪৩ পর্যন্ত আবেদনের আপিল শুনানি গ্রহণ করবে কমিশন।

প্রতিটি আবেদনের আপিল শুনানি শেষে সঙ্গে সঙ্গেই রায় জানিয়ে দেয়া হচ্ছে। সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি যদি উচ্চ আদালতে কমিশনের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে চান, তাহলে তাকে রায়ের নকল কপি দিয়ে দেয়া হবে।

নির্বাচন এর আরও খবর

//election count down //sticky sidebar