বগুড়ায় উপ-নির্বাচনের মক ভোটে সাড়া নেই

গনেশ দাস,স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বগুড়া, বার্তা২৪ কম
অলস সময় পার করছেন মক নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা, ছবি: বার্তা২৪

অলস সময় পার করছেন মক নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা, ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

নির্বাচন কমিশনের ব্যাপক প্রচার প্রচারণাতেও সাড়া পড়েনি ইভিএমের মাধ্যমে মক ভোট। বগুড়া-৬ (সদর) আসনে উপ-নির্বাচনে শনিবার (২২ জুন) সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ১৪১টি কেন্দ্রে মক ভোট অনুষ্ঠিত হয়। মক ভোটে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়াতে গত এক সপ্তাহ ধরে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ভোট কেন্দ্রে ইভিএম প্রদর্শন, লিফলেট বিতরণ ও মাইকিং করা হয়। কিন্তু কাজে আসেনি নির্বাচন কমিশনের এই প্রচারণা। ভোটকেন্দ্রগুলোতে মাত্র চার থেকে ছয় ভাগ ভোটারের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

মক ভোট দিতে আসা জাহিদুর রহমান বার্তা ২৪.কমকে বলেন, ‘আমি টেকনোলজি সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা রাখি। তারপরেও ইভিএমএর মাধ্যমে ভোট কিভাবে দেয় এটা দেখতে এসেছি।’

শহরের মালতি নগর এলাকার রোমান নামের একজন ভোটার বলেন, ‘এলাকার ভোটারদের মধ্যে কোনো আগ্রহ দেখা যাচ্ছে না। ভোটকেন্দ্রগুলো ফাঁকা কিন্তু কেউ ভোট দিতে আগ্রহ দেখাচ্ছে না।’

বগুড়া জেলা স্কুল ভোটকেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার আবুল হোসেন বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘এই ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটারের সংখ্যা ১ হাজার ৯৭৭ জন। দুপুর দুইটা পর্যন্ত মক ভোট দিয়েছেন মাত্র ১৭ জন।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/22/1561204658446.JPG
দুই একজন ভোটার মক ভোটে অংশগ্রহণ করেন, ছবি: বার্তা২৪

 

তিনি বলেন, ‘যারা ভোট দিতে এসেছেন তারা ইভিএমে খুব সহজ এবং খুব দ্রুত সময়ে ভোট দিতে পেরে খুশি। বগুড়া-৬ আসনের বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, শহর এবং গ্রামের চিত্র একই। কেউ আগ্রহ সহকারে ভোট কেন্দ্রে যাচ্ছেন না। ভোটাররা যে যার কাজে ব্যস্ত।’

বগুড়া পৌরসভার ধরমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার লাবণ্য কনা দাস বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘২০৬৪ জন ভোটারের মধ্যে বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত ১১জন নারী ও ৩৭ জন পুরুষ মক ভোট দিতে আসেন।’

নামুজা ইউনিয়নের নামুজা এসএসআই ফাজিল মাদ্রাসা মহিলা ভোট কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার হামিদুল আলম বলেন, ‘২ হাজার ১৬০ জন ভোটারের মধ্যে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৩২ জন ভোট দিয়েছেন।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/22/1561204727808.JPG

গোকুল ইউনিয়নের গোকুল তছলিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় পুরুষ ভোটকেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার আব্দুল বাকী বলেন, ‘২ হাজার ২৬৩জন ভোটারের মধ্যে ভোট দিয়েছেন মাত্র ৫৭ জন।

তবে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী টিজামান নিকেতা বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘মানুষ প্রযুক্তির বিষয়ে আগের থেকে অনেক বেশি জানে। এছাড়াও মোবাইল ফোনেই ইভিএম সম্পর্কে ধারণা পেয়েছে। এ কারণে মক ভোটে আগ্রহ কম। ভোটের ব্যাপক উপস্থিতি হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।’

আপনার মতামত লিখুন :