বাদ অনু মালিক

বিনোদন ডেস্ক
অনু মালিক

অনু মালিক

  • Font increase
  • Font Decrease

বলিউডের জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক ও গায়ক অনু মালিকের বিরুদ্ধে উঠেছে যৌন হেনস্থার অভিযোগ। একের পর এক নারী হেনস্থার অভিযোগ তুলেই যাচ্ছেন তার বিরুদ্ধে। এর জের ধরেই এবার ‘ইন্ডিয়ান আইডল ১০’ – এর বিচারকের আসন থেকে তাকে সরিয়ে দিচ্ছেন সোনি এন্টারটেইনমেন্ট চ্যানেল কর্তৃপক্ষ।

#MeeToo মধ্য দিয়ে অনু মালিকের বিরুদ্ধে প্রথম যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলেছিলেন গায়িকা সোনা মহাপাত্র। এরপর দিনকয়েক কাটতে না কাটতেই আবারও একই অভিযোগে সরব হন সংগীতশিল্পী শ্বেতা পণ্ডিত।

গত সপ্তাহে অনু মালিকের বিরুদ্ধে টুইটারে অভিযোগ করেন শ্বেতা পণ্ডিত লিখেছেন- অনু মালিক আসলে শিশু যৌন নিগ্রহকারী। আমার যখন ১৫ বছর বয়স, তখন আমায় যৌন হেনস্থা করেছেন তিনি। আমার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় হাত দিয়েছিলেন তিনি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Oct/21/1540118910236.jpg
সোনা মহাপাত্র

 

এখানেই শেষ নয়, সোনা মহাপাত্র-শ্বেতা পণ্ডিতের পর অনুর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন আরও দুই নারী।

সম্প্রতি নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক নারী অনু মালিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেছেন- নব্বই দশকে মেহবুব স্টুডিওর মধ্যে আমাকে একা পেয়ে চেপে ধরেছিলেন অনু মালিক। কিছুক্ষণ পর অবশ্য তিনি নিজেই ক্ষমা চেয়ে নেন।

এখানেই শেষ নয়, ওই নারী আরও বলেন, একটি সংস্থার জন্য চাঁদা আনতে তার বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে ফের কুৎসিত পরিস্থিতির মুখোমুখি হই। একটি সোফাতে আমার খুব কাছে এসে বসেছিলেন তিনি। তার পরিবারের কেউ বাড়িতে নেই, এটা জানার পরেই বুঝতে পারি আমি ফাঁদে পড়ে গিয়েছি। তিনি আমাকে জোর করে চেপে ধরে আমার স্কার্ট টেনে নামিয়ে দিয়েছিলেন। তারপর নিজের প্যান্টের চেন খুলে আমাকে চেপে ধরেছিলেন। আচমকাই সেই সময়ই কলিং বেল বেজে ওঠে। আমি বেঁচে যাই।’’
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Oct/21/1540118927223.jpg

আরেক নারী যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছেন অনু মালিকের বিরুদ্ধে। তার দাবি, অনু মালিক তাকে একটি শিফন শাড়ি পড়ে স্টুডিওতে আসতে বলেছিলেন। স্টুডিওতে আসার পর অনু তাকে বলেন, ‘‘আপনার কোনও বয়ফ্রেন্ড নেই, আপনি খুব একা?’’ এরপরেই স্টুডিওর ফ্লোরে তাকে চেপে ধরেন অনু। ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন ওই নারী। কারণ পুরো স্টুডিও ছিল সাউন্ডপ্রুফ। চিৎকার করলেও বাইরে থেকে কেউ শুনে যে বাঁচাতে এগিয়ে আসবেন সেই উপায় ছিল না। ওই নারীর লাগাতার আপত্তির পর অবশ্য নিজেকে সামলে নেন অনু। গম্ভীর গলায় বলেন, ‘‘আমি আমার স্ত্রী ও পরিবারের সঙ্গে খুব খুশি।’’

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, একের পর এক নারীর অভিযোগের ভিত্তিতেই ‘ইন্ডিয়ান আইডল ১০’-এর বিচারকের আসন থেকে অনুকে হটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেয় সোনি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Oct/21/1540118945972.jpg
শ্বেতা পণ্ডিতে

 

জানা গেছে- ওই নারীদের করা অভিযোগের তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত অনু বিচারকের আসনে বসতে পারবেন না। এছাড়া অনু মালিক থাকাকালীন যতোগুলো পর্ব শুট করা হয়েছে, সেগুলো সম্প্রচারিত হওয়ার পর আর কোনও পর্বে তাকে রাখা হবে না।

যদিও যাবতীয় অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন আনুর দাবি, তার বিরুদ্ধে চক্রান্ত করা হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :