Barta24

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ৩১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা টেলি সামাদ আর নেই

জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা টেলি সামাদ আর নেই
অভিনেতা টেলি সামাদ। ছবি: সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
ঢাকা
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা আবদুস সামাদ ওরফে টেলি সামাদ (ইন্না...রাজিউন)। শনিবার (৬ এপ্রিল) দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো৭৪ বছর।

টেলি সামাদের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, ‘দুপুরের দিকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন টেলি সামাদ। তার মৃত্যুতে শিল্পী সমিতি একজন দক্ষ অভিনেতাকে হারাল। তার মৃত্যু আমাদের শোকে স্তব্দ করে দিয়েছে। তার পরিবারের জন্য সবার দোয়া চাই।’ 

দীর্ঘদিন ধরে নানা শারীরিক জটিলতায় ভুগছিলেন বাংলা চলচ্চিত্রের বরেণ্য এই অভিনেতা। গত বছরের ডিসেম্বরে বুকে সমস্যা নিয়ে স্কয়ার হাসপাতালে প্রায় দুই সপ্তাহ চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। এরপর চলতি বছরের জানুয়ারিতে দীর্ঘ সময় তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এর আগে ২০১৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রের তার বাইপাস সার্জারি হয়।

১৯৪৫ সালের ৮ জানুয়ারি মুন্সিগঞ্জের নয়াগাঁও এলাকায় টেলিসামাদ জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৩ সালে ‘কার বউ' সিনেমার মধ্য দিয়ে রূপালী পর্দায় পা রাখেন জনপ্রিয় এই অভিনেতা। ৪৬ বছরের ক্যারিয়ারে অভিনয় করেছেন প্রায় ৬০০ সিনেমাতে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য- ‘কুমারী মা’, ‘সাথী হারা নাগিন’, ‘মায়ের চোখ’, ‘আমার স্বপ্ন আমার সংসার’, ‘রিকসাওয়ালার ছেলে’, ‘মন বসে না পড়ার টেবিলে’, ‘কাজের মানুষ’, ‘মায়ের হাতে বেহেস্তের চাবি’, ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ও ‘মিস লোলিতা’। সবশেষ ২০১৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘জিরো ডিগ্রি’ ছবিতে দেখা গেছে তাকে।

 

আপনার মতামত লিখুন :

এফডিসিতে ১৫ শিল্পী স্মরণে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল

এফডিসিতে ১৫ শিল্পী স্মরণে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

জুলাই মাস যেন শিল্পী হারানোর মাস। এই মাসে বাংলা সিনেমার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ১৫ জন শিল্পী পাড়ি জমিয়েছেন ওপারে।

বুলবুল আহমেদ, দিলদারসহ প্রয়াত এই ১৫ জন শিল্পীর স্মরণে সোমবার (১৫ জুলাই) এফডিসিতে বাদ আসর মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি।

বাদ আসর সমিতির স্টাডি রুমে এই মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে চিত্রনায়ক ফারুক, আলমগীরসহ শিল্পী ও কলাকুশলীরা অংশগ্রহণ করেন। এর আগে ১৫ জন শিল্পীর স্মরণে সকাল থেকে কোরআন খতম দেয়া হয়।

এই আয়োজনের ব্যাপারে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির পক্ষে অভিনেতা জায়েদ খান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, 'এই মাসে আমরা এতো শিল্পী হারিয়েছি যে সবার আলাদা করে দোয়ার অনুষ্ঠান করাটা কঠিন হয়ে যাবে। সে কারণে একদিনেই করলাম। এর বাইরে আমরা প্রতি মাসে একবার করে প্রয়াত শিল্পীদের স্মরণে এই আয়োজন করে থাকি। যাদের কাজ দেখে বড় হয়েছি, তাদের জন্য কিছু করতে পারলে ভালো লাগে। নতুনরাও অনুপ্রাণিত হয়। আর তাদের ব্যাপারে জানতে পারে।'

হাসপাতালে বসে সম্মাননা পদক পেলেন এটিএম শামসুজ্জামান

হাসপাতালে বসে সম্মাননা পদক পেলেন এটিএম শামসুজ্জামান
এটিএম শামসুজ্জামান

গত দুই মাস ধরে হাসপাতালে আছেন এটিএম শামসুজ্জামান। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি রয়েছেন। আর সেখানে বসেই সম্মাননা পদক পেলেন বাংলা সিনেমার এই গুণী অভিনেতা।

রোববার (১৪ জুলাই) বিকেলে হাসপাতালে গিয়ে বুলবুল আহমেদ স্মৃতি সম্মাননা পদক প্রদান করা হয় ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে। ফাউন্ডেশনের পক্ষে বুলবুল আহমেদের সহধর্মিণী ডেইজি আহমেদ ও কন্যা তাহসিন ফারজানা তিলোত্তমা পদক তুলে দেন এটিএম শামসুজ্জামানের হাতে।

সম্মাননা পদক পেয়ে এটিএম শামসুজ্জামান বলেন, ‘এখন যারা বুলবুল আহমেদকে সরাসরি পাবে না, তারা তার সিনেমা দেখো। তিনি ভালো মানুষ ছিলেন।’

আজ বুলবুল আহমেদের নবম মৃত্যুবার্ষিকী। ২০১০ সালের এই দিনে পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান তিনি। সেই থেকে তার স্মৃতিকে ধরে রাখতে এবং প্রবীণ বরণীয় শিল্পীদের স্মরণীয় করে রাখতে বুলবুল আহমেদের পরিবার ও বুলবুল আহমেদ ফাউন্ডেশনের পক্ষে প্রতি বছর সম্মাননা দেওয়ার আয়োজন করা হয়।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র