Barta24

বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

English

মান্না দে: সংগীত জাদুকরের ৯০তম জন্মদিন

মান্না দে: সংগীত জাদুকরের ৯০তম জন্মদিন
মান্না দে
ড. মাহফুজ পারভেজ
কন্ট্রিবিউটিং এডিটর
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

রোমান্টিক গানের অতুলনীয় শিল্পী, সংগীত জাদুকর মান্না দে’র মূল নাম প্রবোধ চন্দ্র দে, যাকে অনেকেই বলেন আধুনিক বাংলা গানের রাজপুত্র। জন্ম পহেলা মে, ১৯১৯ সাল। আজ তার ৯০তম জন্মদিনে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে থাকা বাংলা গানের শ্রোতারা তাকে স্মরণ করছে সংগীতের সুর ও লহরীতে।

তার জন্মস্থান অবিভক্ত বাংলার কলকাতা শহর। শিক্ষা ও সংগীতের তালিম নেন তিনি কলকাতাতেই। পঞ্চাশ ও ষাট দশকের আধুনিক বাংলা গানের উজ্জ্বল তারকা তিনি। বর্ণাঢ্য সংগীত জীবনে সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি গান গেয়ে রেকর্ড করেছিলেন। অর্জন করেছেন পদ্মশ্রী, পদ্মবিভূষণ, দাদাসাহেব ফালকে ও বঙ্গবিভূষণ সম্মাননা। সেই সঙ্গে অসংখ্য শ্রোতার অপরিসীম ভালোবাসা তো রয়েছেই।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/01/1556696462910.jpg

১৯৪৩ সালে বোম্বের ‘তামান্না’ চলচ্চিত্রে বিখ্যাত গায়িকা ও নায়িকা সুরাইয়ার সঙ্গে গান গেয়ে মান্না দে’র অভিষেক হয়। তারপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। বাংলা, হিন্দি, মারাঠি, গুজরাতিসহ বিভিন্ন ভাষায় গান গেয়ে জয় করেছেন শ্রোতাদের হৃদয়।

১৯৫৩ সালে কেরালার মেয়ে সুলোচনা কুমারনকে বিয়ে করেন মা্ন্না দেন। ৫০ বছরেরও বেশি সময় বোম্বের কাটানোর পর বেঙ্গালুরুর কালিয়ানগর এলাকায় বসবাস করেন তিনি। মারাও যান দক্ষিণ ভারতের সেই শহরেই।

২০১৩ সালের ২৪ অক্টোবর তারিখটি ছিল বাংলা পৌষ মাসের কাছাকাছি অগ্রহায়নের একটি দিন। যে দিনে প্রয়াত হয়েছিলেন আধুনিক বাংলা গানের রাজপুত্র মান্না দে। মৃত্যুতেও তিনি মনে করিয়ে দেন তার প্রিয় গানের অবিস্মরণীয় লাইনগুলো: ‘পৌষের কাছাকাছি রোদ মাখা সেই দিন/ফিরে আর আসবে কি কখনো…।

কাজের প্রয়োজনে নানা স্থানে থাকলেও বাংলা ভাষা, গান ও বাংলার সঙ্গে কখনোই তার বিচ্ছেদ ঘটেনি। ‘কফি হাউসের সেই আড্ডাটা’, ‘আবার হবে তো দেখা’, ‘এই কূলে আমি আর ওই কূলে তুমি’, ‘তীর ভাঙা ঢেউ আর নীড় ভাঙা ঝড়’, ‘যদি কাগজে লেখো নাম’, ‘সে আমার ছোট বোন’, ‘যে ক্ষতি আমি নিয়েছিলাম মেনে’, ‘খুব জানতে ইচ্ছে করে’ ইত্যাদি গানে তিনি আজো বাঙালি শ্রোতার চিত্তে অমর হয়ে আছেন।

ঈর্ষণীয় জনপ্রিয়তা, সম্মান ও ভালোবাসার অধিকারী মান্না দে আজ থেকে ৯০ বছর আগে তপ্ত বৈশাখের একটি খর দিনে জন্ম নিয়ে পৌষের কাছাকাছি একটি দিনে বাংলা থেকে বহুদূরে দক্ষিণ ভারতের বেঙ্গালুরুর নারায়ণা হৃদয়ালয়ে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। প্রখর গ্রীষ্মের প্রহরে কিংবা পৌষের কাছাকাছি রোদমাখা হালকা শীতের দিনগুলোতে তার কথা বাঙালির মনে পড়বেই। মনে পড়বে তার চিরায়ত গানগুলো।

অমর শিল্পীর জন্মদিনে বার্তা২৪.কমের সশ্রদ্ধ শুভেচ্ছা। বার্তা২৪.কমের আর্কাইভের একটি ভিডিও ক্লিপের মাধ্যমে স্মরণ করি এই অনন্য সংগীত প্রতিভাকে।

আপনার মতামত লিখুন :

বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে জিতের ‘প্যান্থার’ ও জয়ার ‘বিনিসুতোয়’

বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে জিতের ‘প্যান্থার’ ও জয়ার ‘বিনিসুতোয়’
‘প্যান্থার’ ও ‘বিনিসুতোয়’ ছবির পোস্টার

সাফটা চুক্তির আওতায় কলকাতার আরও দুটি সিনেমা বাংলাদেশে মুক্তি পেতে যাচ্ছে।

গত ১৫ আগস্ট কলকাতায় মুক্তি পাওয়া জিতের ‘প্যান্থার’ ও মুক্তির অপেক্ষায় থাকা জয়া আহসানের ‘বিনিসুতোয়’ সিনেমা দুটি বাংলাদেশে আমদানি করতে যাচ্ছে প্রযোজনা সংস্থা তিতাস কথা চিত্র। প্রযোজনা সংস্থাটির একটি বিশ্বস্ত সূত্র বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে এমন তথ্য নিশ্চিত করেছে।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566381220725.jpg

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শিগগিরই সিনেমা দুটি বাংলাদেশে মুক্তির জন্য সেন্সর বোর্ডে জমা দেওয়া হবে। প্রথমে মুক্তি পাবে জিতের ‘প্যান্থার’। আর কলকাতার সঙ্গে একইদিনে জয়া আহসানের ‘বিনিসুতোয়’ মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে তিতাস কথা চিত্রের। যদিও এখনো সিনেমা দুইটির একটিও সেন্সর বোর্ডে জমা পড়েনি বলে বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে নিশ্চিত করেছে সেন্সর বোর্ডের এক সদস্য।

নতুন সিনেমা আমদানি করা প্রসঙ্গে তিতাস কথা চিত্রের কর্ণধার আবুল কালাম আজাদ বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি সিনেমা দুইটি নিয়ে আসার ব্যাপারে। তবে এখনো আমরা নিশ্চিত নই। রোববার নিশ্চিত করে বলতে পারবো।’

‘প্যান্থার’ জিতের ক্যারিয়ারের ৫০তম সিনেমা। এটি প্রযোজনা করেছে জিৎ ফিল্ম ওয়ার্ক। পরিচালনা করেছেন অংশুমান প্রত্যুষ। এতে জিতের বিপরীতে অভিনয় করবেন শ্রদ্ধা দাস।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566381236239.jpg

এদিকে জয়া আহসানের ‘বিনিসুতোয়’ পরিচালনা করেছেন অতনু ঘোষ। এতে জয়ার বিপরীতে প্রথমবারের মতো অভিনয় করছেন ঋত্বিক চক্রবর্তী। এর গল্প লিখেছেন অতনু ঘোষ নিজেই। এতে জয়া আহসানের গানও শুনতে পারবেন দর্শকরা।

বাবার নকল

বাবার নকল
জেইন ও শহিদ কাপুর

সম্প্রতি ছেলে জেইনের ছবির সঙ্গে নিজের ছোটবেলার একটি ছবি জোড়া দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেছেন শহিদ কাপুর। যা রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গেছে।

শহিদের ছোটবেলার ছবি এবং জেইনের ছবিটি দেখলে প্রথমে বোঝার উপায় নেই এটি আলাদা দু’জন মানুষ।

শেয়ার করা ছবিটির ক্যাপশনে শহিদ কাপুর লিখেছেন- ‘বাবার মতোই ছেলে।’
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566378889530.jpg

ছবিটির নীচে একজন মন্তব্য করে লিখেছেন, ‘একদম নকল।’ আরেকজন কারিনা কাপুর খান ও সাইফ আলি খানের ছেলে তৈমুর আলি খানের সঙ্গে তুলনা করে লিখেছেন- ‘প্রথম ছবিটি তৈমুর এবং দ্বিতীয়টি তুমি।’

পরিচালক সিদ্ধার্থ মালহোত্রা লিখেছেন, ‘রঙ ছাড়া আর কোন ভিন্নতা খুঁজ পাচ্ছি না আমি।’

সবশেষ ‘কবির সিং’ ছবিতে দেখা গেছে শহিদ কাপুরকে। এতে তার সহশিল্পী হিসেবে ছিলেন কিয়ারা আদভানি। বক্স অফিসে সুপার হিট হয়েছে ছবিটি।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র