Alexa

গ্রামীণফোন রিল হান্ট: সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘প্রতিশোধ’

গ্রামীণফোন রিল হান্ট: সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘প্রতিশোধ’

গ্রামীণফোন রিল হান্টের চূড়ান্ত পর্বে বিজয়ী পরিচালকদের সাথে অতিথিরা/ ছবি: সংগৃহীত

গ্রামীণফোনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত রিল হান্ট প্রতিযোগিতায় সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্বাচিত হয়েছে দ্য স্কাই অব হোপের ‘প্রতিশোধ’। এছাড়া দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে যথাক্রমে থ্রি ফিল্মসের ‘আগন্তুক’ এবং অঙ্কুর ক্রিয়েশনের ‘সাহেব বিবি’।

প্রতিযোগিতায় প্রথমস্থান অর্জনকারী দল পুরস্কার হিসেবে এক লাখ টাকা এবং দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জনকারী দল যথাক্রমে ৭৫ হাজার ও ৫০ হাজার টাকা করে পাবে। এছাড়া বিজয়ী তিনটি দলের চলচ্চিত্র প্রচার করবে জনপ্রিয় ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম ‘বায়োস্কোপ’।

শুক্রবার গ্রামীণফোনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সম্ভাবনাময় চলচ্চিত্র নির্মাতাদের কাজ দর্শকদের সামনে তুলে ধরার সুযোগ করে দিতে এবং দেশবরেণ্য চলচ্চিত্র নির্মাতাদের কাছ থেকে সরাসরি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তাদের দক্ষতা উন্নয়নের সুযোগ করে দিতেই এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে গ্রামীণফোনের ডিজিটাল প্লাটফর্ম ‘হোয়াইটবোর্ড’।

আরও জানানো হয়, প্রতিযোগিতার শুরুতে ৬৭৪টি দল তাদের অ্যাসাইনমেন্ট জমা দেয়। পরে বাছাই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে বেছে নেওয়া হয় ‘বায়োস্কোপ’ প্ল্যাটফর্মের উপযোগী ৩৫টি কন্টেন্ট। নির্বাচিত দলগুলোকে ২০ এপ্রিল সারাদিনব্যাপী আয়োজিত চলচ্চিত্র নির্মাণ বিষয়ক বুটক্যাম্পে যোগদানের জন্যে আহ্বান জানানো হয়। এতে প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দেশবরেণ্য চলচ্চিত্র নির্মাতা গাউসুল আলম শাওন, আশফাক নিপুণ ও রাহাত রহমান।

নির্বাচিত ৩৫ জন অংশগ্রহণকারী ছাড়াও তাদের পুরো দলকেই বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় এই বুটক্যাম্পে। প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বের অংশ হিসেবে ২০ ও ৩০ এপ্রিল সবগুলো দল তাদের নির্মিত চলচ্চিত্র বিচারকদের সামনে উপস্থাপন করে।

অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক মূল্যবোধকে এক নতুন উচ্চতায় পৌঁছে দিতেই দেশের বিনোদন শিল্পে স্থান করে নিচ্ছে নতুন প্রতিভাবান নির্মাতারা। ‘রিল হান্ট’ এর মতো একটি প্ল্যাটফর্ম এই নতুন নির্মাতাদের বেড়ে উঠতে সহায়তা করছে।’

গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী মাইকেল ফোলি বলেন, ‘দেশের প্রতিটি খাতে স্থানীয় তরুণ প্রতিভারা শুধুমাত্র জাতীয় পর্যায়েই সুনাম অর্জন করছে না বরং বিশ্বমঞ্চেও আলো ছড়াচ্ছে। গ্রামীণফোন আন্তরিকতার সাথে এই তরুণদের মধ্যে থেকে তাদের সেরাটা বের করে আনতে প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা প্রদান করে এবং তাদের কাজকে প্রচার করতে সহায়তা করে। রিল হান্ট এমনই এক উদ্যোগ যার মাধ্যমে দেশের সেরা সম্ভাবনাময় চলচ্চিত্র নির্মাতাদের খুঁজে বের করবে গ্রামীণফোন।’

আপনার মতামত লিখুন :