Alexa

বিয়ে নিবন্ধন ফরম হাতে ইতালির পথে আনুশকা

বিয়ে নিবন্ধন ফরম হাতে ইতালির পথে আনুশকা

মিয়া-বিবি রাজি, তো কেয়া করে গা কাজি?‌ হুট করে বিমানে উড়ে যাওয়ার আগে শীত মৌসুমে খানিকটা ভালোবাসার উষ্ণতা ছড়িয়ে দিয়ে গেলেন বিরাট-আনুশকা। এরই মধ্যে আনুশকা নাকি বিয়ে নিবন্ধন অফিস থেকে ফরম তুলেছেন এবং বিয়ের জন্য ১২, ১৮ ও ২১ ডিসেম্বর এবং আগামী বছরের ৫ জানু্য়ারির তারিখ পেয়েছেন। যদিও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার হয়ে গেছে ১২ ডিসেম্বরই চার হাত এক হচ্ছে। জাহির–সাগরিকার বিয়ের পরই কথা উঠেছিল এবার বিরাট কোহলি তার দীর্ঘদিনের বান্ধবী আনুশকাকে খুব শিগগিরই বিয়ে করতে চলেছেন। বিরাট–আনুশকার বিয়ের খবর ইতোমধ্যেই ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। যদিও এ নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ বিরুষ্কা। আসল খবর কী, তা কোনও সূত্রই সঠিকভাবে বলতে পারছে না। কিন্তু বিরুষ্কাকে নিয়ে একটু তদন্ত করলেই ব্যাপারটা মিলে যাবে। প্রথমত, বিরাট কোহলি বেশ কয়েকদিন ধরেই ছুটি নিয়ে ঘ্যানঘ্যান করছিলেন। তবে ছুটিটা ঠিক কী কারণে তার চাই, তা স্পষ্ট ছিল না। এটা ঠিকই টানা ৪৮ মাস ধরে ম্যাচ খেলার পর বিরাটের শরীর বিশ্রাম চাইছিল আর সেই বিশ্রামের ফাঁকেই বিয়েটাও সেরে ফেলতে চাইছেন ভারতীয় দলের মোস্ট এলিজেবল ব্যাচেলর। অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার বিরাটের ইতালি উড়ে যাওয়ার পরই আনুশকার পেছন পেছন ইতালি  যাওয়ার পেছনে কী,  তাও স্পষ্ট নয়। যদিও আগেও এই যুগলকে একান্তে বিদেশে সময় কাটাতে দেখা গিয়েছে। এবারও কী সেরকম কিছু? তবে জল্পনা আরও ‌একটু বেড়ে গেল, যখন দেখা গেল আনুশকার পরিবারও ইতালির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে। তাহলে কী দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠদের উপস্থিতিতেই ডেস্টিনেশন বিয়েটা সেরে ফেলতে চাইছেন আনুশকা ও বিরাট?‌ মুম্বাই বিমানবন্দরে অবশ্য আনুশকার গতিবিধি ধরা পড়েছে সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরায়। সাংবাদিকেরা বারবার প্রশ্ন করলেও, আনুশকা কোনও উত্তর দেননি। সোজা এয়ারপোর্টের ভেতরে চলে যান। তার মা–বাবাকেও দেখা যায় ট্রলি ঠেলে ভেতরে ঢুকে যেতে। কিন্তু বিরাট আগাগোড়া নিজেকে একটি কালো জ্যাকেটে মুড়ে রেখেছিলেন, যাতে তাকে কেউ চিনতে না পারেন। এমনকি, নিরাপত্তারক্ষীর সঙ্গে সেলফিও তুলতে অস্বীকার করেন। যদিও এদিনও বিরাট এবং আনুশকা— দু’‌জনের বাড়ির তরফেই বিয়ের সত্যতা স্বীকার করা হয়নি। বিরাট তার ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবের টিকিট ইতোমধ্যেই বুক করিয়ে দিয়েছেন। এমনকি, তার ছোটবেলার কোচ রাজকুমার শর্মাও বিয়েতে যাবেন বলে দিল্লির কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচে হাজির থাকতে পারছেন না। তবে, রাজকুমার নাকি জানিয়েছেন, তার ভাইপোর বিয়ে!‌ আরেক সংবাদপত্রের খবর অনুযায়ী, মুম্বাইয়ের ভার্সোভার যে অ্যাপার্টমেন্টে থাকেন আনুশকা, সেখানকার কিছু প্রতিবেশীকেও নিমন্ত্রণ করেছেন এই অভিনেত্রী। সব মিলিয়ে ব্যাপার বেশ রহস্যময়। বিরুষ্কাকে নিয়ে তদন্ত করতে গিয়ে আরও রোমাঞ্চকর তথ্য জানা গিয়েছে। বিরাট–আনুশকার ব্রেক আপের পর যখন পুনরায় প্যাচ–আপ হয় তাদের, তখন দেরাদুনে এক সাধুবাবার আশ্রমে আর্শীবাদ নিতে গিয়েছিলেন দু’‌জনে। শোনা যাচ্ছে, সেই সাধু মহারাজকেও ইতালিতে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। অতএব সোশ্যাল মিডিয়াকে যতই বুদ্ধু বানানোর চেষ্টা হোক, বিষয়টি স্পষ্ট। এখন ফাইনাল নাইট ১২ না হলে ১৮, ফের যখন ভারতে ফিরবেন বিরাট, তখন নিশ্চয়ই বউ নিয়েই ফিরবেন। সূত্র: আজকাল।