আনুশকার জীবনের এক কঠিন সত্য

বিনোদন ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
আনুশকা শঙ্কর, ছবি: সংগৃহীত

আনুশকা শঙ্কর, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সেতার শিল্পী আনুশকা শঙ্করের পেটে ১৩টি টিউমার হয়েছিল। এ কারণে তাকে দুটি অস্ত্রোপচার করাতে হয়েছে। এমনকি বাদ দিতে হয়েছে জরায়ু। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে জীবনের এই সত্যি ঘটনার কথা জানান তিনি।

আনুশকা লিখেছেন, ‘গত মাসের পর থেকে আমার জরায়ু আর নেই। আমার দুটি অস্ত্রোপচার হয়েছে। একটি স্ত্রীরোগের ও অন্যটি ক্যান্সারের। কারণ আমার জরায়ুর টিউমারগুলো ক্রমাগত বেড়ে যাচ্ছিল। তাই জরায়ুর আকার প্রায় ছয় মাসের গর্ভবতীর মতো হয়ে গিয়েছিল। চিকিৎসকরা ১৩টি টিউমারই অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে বের করে দেন।’

আনুশকা আরও লিখেছেন, ‘২৬ বছর বয়সে প্রথম বুঝতে পারি, আমার জরায়ুতে ফাইব্রয়েডের (ক্যান্সারবিহীন টিউমার) মতো কিছু একটা রয়েছে। এজন্য অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সেটি জরায়ু থেকে কেটে বাদ দেওয়া হয়। পরবর্তী সময়ে দুই সন্তানের মা হয়েছি।’

জরায়ু কেটে বাদ দিতে হবে জানার পর কিছুদিন বিষণ্নতায় ভুগেছেন আনুশকা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কিছুদিন আগে আমার জরায়ু কেটে বাদ দিতে হবে জানার পর অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলাম। তখন ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম এই ভেবে, হয়তো আমার নারীত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠবে। ভবিষ্যতে আর কোনোদিন সন্তান জন্ম দেওয়ার কথা ভাবতে পারবো না। আমার যৌনজীবনেও হয়তো এর নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। এসব অনেক কথাই মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছিল। তবে বিষয়টি নিয়ে আমার বন্ধু-বান্ধব ও পরিচিতদের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারি, অনেক নারী এ ধরনের ভয়ানক পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে গেছে ও যাচ্ছে।’

আনুশকা শঙ্কর হলেন প্রয়াত সেতারশিল্পী পণ্ডিত রবি শঙ্করের মেয়ে। ব্রিটিশ চলচ্চিত্র নির্মাতা জো রাইটের সঙ্গে ২০১০ সালে ঘর বেঁধেছিলেন তিনি। আট বছর পর তাদের দাম্পত্য জীবন ভেঙে যায়। আনুশকা এখন দুই সন্তান জুবিন শঙ্কর রাইট ও মোহন শঙ্কর রাইটকে নিয়ে লন্ডনে বসবাস করেন।

আপনার মতামত লিখুন :