যৌনপল্লী থেকে নারী মুক্তির গল্প শোনাবেন মায়াবতী’র তিশা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
মায়াবতী আড্ডা'য় মায়াবতী টিম,ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

মায়াবতী আড্ডা'য় মায়াবতী টিম,ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর ঢাকাসহ সারাদেশের ১৬টি সিনেমা হলে মুক্তি পাচ্ছে নুসরাত ইমরোজ তিশা ও ইয়াশ রোহান জুটির ‘মায়াবতী’ সিনেমা।

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) রাতে সিনেমাটির মুক্তিকে সামনে রেখে রাজধানীর একটি রেস্টুরেন্ট অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো মায়াবতী আড্ডা। সেখানে উপস্থিত ছিলেন সিনেমাটির নির্মাতা, নায়ক-নায়িকাসহ সিনেমা সংশ্লিষ্টরা।

নির্ধারিত সময়ের দীর্ঘ সময় পর অনুষ্ঠান শুরু হয়। এরপর অনুষ্ঠানের প্রায় শেষ মুহূর্তে হাজির হন এই সিনেমার নায়িকা নুসরাত ইমরোজ তিশা। এর আগেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিনেমাটির সঙ্গে যুক্ত প্রায় সকলেই।

প্রথমে অনুষ্ঠানে দেরিতে আসার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন তিশা। এরপর দর্শকদের উদ্দেশ্যে তিশা বলেন, ‘আমাদের দেশে এখন অনেক ভালো চলচ্চিত্র নির্মাণ হচ্ছে। দর্শকরা যখন পরিবারের সবাইকে নিয়ে হলে সিনেমা দেখতে আসেন তখন আমাদের কষ্ট স্বার্থক হয়। তারা যখন সিনেমাকে ভালো বলেন তখন সামনে আরও ভালোকিছু করার অনুপ্রেরণা পাই। আমি সবাইকে আমন্ত্রণ জানাব সিনেমাটি দেখার জন্য। এই সিনেমাটিতে একটি ম্যাসেজ আছে। প্রত্যেক মানুষের 'না' বলার অধিকার আছে। সবার এই ‘না’কে শ্রদ্ধা করা উচিত।’

তিশা আরও বলেন, ‘সিনেমাটির টিজার, ট্রেলার ও গানে বেশ সাড়া পেয়েছি আমরা। আমার বিশ্বাস সিনেমাটি সবার ভালো লাগবে। আমরা এই সিনেমার একটি বড় অংশের শুটিং করেছি দৌলতদিয়ার যৌন পল্লীতে। সেখানকার মানুষেরা আমাদের অনেক সহযোগিতা করেছেন। সিনেমাটি তাদের ডেলিগেট করা উচিত।’

সিনেমাটির নায়ক ইয়াশ রোহান বলেন, ‘আমাদের দেশে নারীদের নানাভাবে নির্যাতন ও হেয় করা হয়। এরকম সময়ে এ সিনেমাটি নির্মাণের দরকার ছিল।’

সিনেমাটির পরিচালক অরুণ চৌধুরী জানিয়েছেন, এ  সিনেমার গল্পে আছে প্রেম, অনেক আনন্দ সঙ্গে আরও অনেক কষ্ট আছে। এতে আছে একজন নারীর লড়াই ও প্রতিশোধের কাহিনী। ২ ঘণ্টা ২০ মিনিটের এ সিনেমাটি গল্প গড়ে উঠেছে ‘ওমেন ট্র্যাফিকিং’ নিয়ে।

সিনেমাটির গল্পে দেখা যাবে, ‘মায়া’ নামে এক কিশোরী ছোটবেলায় মায়ের কাছে থেকে চুরি হয়ে যায়। পরে তাকে বিক্রি করা হয় দৌলতদিয়ার যৌন পল্লীতে। সেখানে বেড়ে ওঠে সে, সংগীত গুরু খোদাবক্স তাকে বড় করে তোলেন। এ সময় ব্যারিস্টার পুত্রের প্রেমে পড়েন মায়া। সিনেমাটির কাহিনী, চিত্রনাট্য এবং পরিচালনায় রয়েছেন নির্মাতা অরুণ চৌধুরী। এটি তার পরিচালিত দ্বিতীয় সিনেমা।

সিনেমাটিতে আরও অভিনয় করেছেন ফজলুর রহমান বাবু, রাইসুল ইসলাম আসাদ, দিলারা জামান, মামুনুর রশীদ, ওয়াহিদা মল্লিক জলি, আফরোজা বানু, অরুনা বিশ্বাস, তানভীর হোসেন প্রবাল, আগুন প্রমুখ।

সিনেমাটিতে চিরকুটের গাওয়া 'আটকে গেছে মন’ ইতিমধ্যেই জনপ্রিয় হয়েছে। এছাড়া ফরিদ আহমেদের সংগীত পরিচালনায় গান রয়েছে। আসছে মাসেই দেশের বাইরে মুক্তি পাচ্ছে ‘মায়াবতী’। মায়াবতী আড্ডা অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন চিত্রনাট্যকার, উপস্থাপক রুম্মান রশীদ খান। ‘মায়াবতী’ পরিবেশনা করছে জাজ মাল্টিমিডিয়া ও মার্কেটিং কনসালটেন্ট থ্রি আর মিডিয়া।

আপনার মতামত লিখুন :