Barta24

বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

English

কার পছন্দ কোন দল?

কার পছন্দ কোন দল?
বিনোদন ডেস্ক


  • Font increase
  • Font Decrease

চলছে বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮। উত্তেজনা পুরো বিশ্বজুড়ে। শোবিজ তারকাদেরও নিজ নিজ পছন্দের দল আছে। কার পছন্দ কোন দল? তিন পর্বের ধারাবহিকের প্রথম পর্ব আজ।

 

জায়েদ খান আর্জেন্টিনা পছন্দ করেন খেলার কৌশলের কারণে। বিশ্বকাপে এবারও তারা হট ফেভারিট দল। বিশ্বকাপ এবার আর্জেন্টিনা জিতবে, বিশ্বাস তার।

আফসানা মিমি’র পছন্দ ব্রাজিল। নেইমার তার প্রিয় খেলোয়ার। সব কাজ বন্ধ রেখে হলেও খেলা দেখতে চান তিনি। নেইমারের জাদু তো মিস করা যাবে না!

বিপাশা কবির ব্রাজিলের ভক্ত। পাঁচবার শিরোপা নিয়েছে তারা, এবারও নেবে বলে বিশ্বাস করেন তিনি।

আসিফ-এর প্রিয় খেলোয়ার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। প্রিয় দল অবশ্য ব্রাজিল। যেখানেই থাকেন তিনি, খেলার সময়ে বন্ধুদের নিয়ে খাওয়া দাওয়ার আয়োজন রাখেন।

পপি’র পছন্দ ব্রাজিল। এরা চ্যাম্পিয়ন হলে খুব খুশি হবেন তিনি। বিশ্বকাপে যদি বাংলাদেশ খেলতো, আরও বেশি খুশি হতেন।

তানভীন সুইটি আর্জেন্টিনার ভক্ত ছোটবেলা থেকেই। ম্যারাডোনা-বাতিস্তুতাদের ম্যাজিক দেখতেন আগে, এখন মেসির। মেসি যদি স্বভাবসুলভ খেলাটা ধরে রাখতে পারেন, কাপ আর্জেন্টিনার ঘরেই উঠবে- বিশ্বাস করেন তিনি।

তারিন খেলা দেখেন বাসায় বসে, সবাই মিলে। একসঙ্গে খাওয়া-দাওয়া আনন্দ-উল্লাস সবই হয়। সমর্থন করেন ব্রাজিল। তার পরিবারের বেশিরভাগও তাই। আশা করেন এবারের বিশ্বকাপ ব্রাজিলই জিতবে।

সুমাইয়া শিমু’র প্রিয় দল আর্জেন্টিনা। খেলা বোঝার পর থেকেই এ দলের প্রতি দুর্বলতা তার। বাসায় বসে খেলা দেখেন। শুটিং থাকলে অবশ্য স্পটেই দেখা হয় খেলা। তিনি চান আর্জেন্টিনা শিরোপা জিতুক।

নোবেল মূলত ব্রাজিলের সমর্থক। কারণ আছে। ব্রাজিলের খেলায় শিল্প থাকে, ছন্দ খুঁজে পাওয়া যায়। ফলে, ওদের খেলা দেখতেও ভালো লাগে তার।

ফেরদৌস আশা করেন, মেসির জাদুতে কাবু হবে গোটা বিশ্ব। ক্লাব টুর্নামেন্টে যেমন খেলেন মেসি, তার অর্ধেক এই টুর্নামেন্টে খেললেও বাজিমাত হবে বলে ধারণা তার। অপেক্ষায় আছেন আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ের।

আপনার মতামত লিখুন :

বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে জিতের ‘প্যান্থার’ ও জয়ার ‘বিনিসুতোয়’

বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে জিতের ‘প্যান্থার’ ও জয়ার ‘বিনিসুতোয়’
‘প্যান্থার’ ও ‘বিনিসুতোয়’ ছবির পোস্টার

সাফটা চুক্তির আওতায় কলকাতার আরও দুটি সিনেমা বাংলাদেশে মুক্তি পেতে যাচ্ছে।

গত ১৫ আগস্ট কলকাতায় মুক্তি পাওয়া জিতের ‘প্যান্থার’ ও মুক্তির অপেক্ষায় থাকা জয়া আহসানের ‘বিনিসুতোয়’ সিনেমা দুটি বাংলাদেশে আমদানি করতে যাচ্ছে প্রযোজনা সংস্থা তিতাস কথা চিত্র। প্রযোজনা সংস্থাটির একটি বিশ্বস্ত সূত্র বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে এমন তথ্য নিশ্চিত করেছে।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566381220725.jpg

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শিগগিরই সিনেমা দুটি বাংলাদেশে মুক্তির জন্য সেন্সর বোর্ডে জমা দেওয়া হবে। প্রথমে মুক্তি পাবে জিতের ‘প্যান্থার’। আর কলকাতার সঙ্গে একইদিনে জয়া আহসানের ‘বিনিসুতোয়’ মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে তিতাস কথা চিত্রের। যদিও এখনো সিনেমা দুইটির একটিও সেন্সর বোর্ডে জমা পড়েনি বলে বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে নিশ্চিত করেছে সেন্সর বোর্ডের এক সদস্য।

নতুন সিনেমা আমদানি করা প্রসঙ্গে তিতাস কথা চিত্রের কর্ণধার আবুল কালাম আজাদ বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি সিনেমা দুইটি নিয়ে আসার ব্যাপারে। তবে এখনো আমরা নিশ্চিত নই। রোববার নিশ্চিত করে বলতে পারবো।’

‘প্যান্থার’ জিতের ক্যারিয়ারের ৫০তম সিনেমা। এটি প্রযোজনা করেছে জিৎ ফিল্ম ওয়ার্ক। পরিচালনা করেছেন অংশুমান প্রত্যুষ। এতে জিতের বিপরীতে অভিনয় করবেন শ্রদ্ধা দাস।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566381236239.jpg

এদিকে জয়া আহসানের ‘বিনিসুতোয়’ পরিচালনা করেছেন অতনু ঘোষ। এতে জয়ার বিপরীতে প্রথমবারের মতো অভিনয় করছেন ঋত্বিক চক্রবর্তী। এর গল্প লিখেছেন অতনু ঘোষ নিজেই। এতে জয়া আহসানের গানও শুনতে পারবেন দর্শকরা।

বাবার নকল

বাবার নকল
জেইন ও শহিদ কাপুর

সম্প্রতি ছেলে জেইনের ছবির সঙ্গে নিজের ছোটবেলার একটি ছবি জোড়া দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেছেন শহিদ কাপুর। যা রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গেছে।

শহিদের ছোটবেলার ছবি এবং জেইনের ছবিটি দেখলে প্রথমে বোঝার উপায় নেই এটি আলাদা দু’জন মানুষ।

শেয়ার করা ছবিটির ক্যাপশনে শহিদ কাপুর লিখেছেন- ‘বাবার মতোই ছেলে।’
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566378889530.jpg

ছবিটির নীচে একজন মন্তব্য করে লিখেছেন, ‘একদম নকল।’ আরেকজন কারিনা কাপুর খান ও সাইফ আলি খানের ছেলে তৈমুর আলি খানের সঙ্গে তুলনা করে লিখেছেন- ‘প্রথম ছবিটি তৈমুর এবং দ্বিতীয়টি তুমি।’

পরিচালক সিদ্ধার্থ মালহোত্রা লিখেছেন, ‘রঙ ছাড়া আর কোন ভিন্নতা খুঁজ পাচ্ছি না আমি।’

সবশেষ ‘কবির সিং’ ছবিতে দেখা গেছে শহিদ কাপুরকে। এতে তার সহশিল্পী হিসেবে ছিলেন কিয়ারা আদভানি। বক্স অফিসে সুপার হিট হয়েছে ছবিটি।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র