চমকের মন্ত্রিসভায় তারুণ্যের আভা, আইকনিক রাজনীতিকরা দূরে

প্রণব সাহা
ছবি: বার্তা২৪

ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

চমকের মন্ত্রিসভায় আশাবাদী হতে চায় বাংলাদেশ । তারুণ্যের প্রাধান্য আছে ,কিন্তু আইকনিক আওয়ামী লীগ নেতারা দৃশ্যমান নন। ৪৭ জনের মন্ত্রিসভায় নারী প্রতিনিধিত্ব খুব কম। আছে তারুণ্যের প্রভাব। বিগত মন্ত্রিসভায় ছিলেন, তবে দেশবাসীর কাছে সমালোচনার পাত্র হয়ে ওঠা " গম ইস্যু" আর " বিদ্রুপ হাসির" বিদায়ে আশাবাদী সাধারণ মানুষ।

চতুর্থবারের মত মন্ত্রিসভা গঠন করেছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা । ১৯৯৬ সালের প্রথমবার, দল জিতেছে ২১ বছর পর, সরকার গঠনের মত ১৫১ জনের সংখ্যাগরিষ্ঠতা মেলেনি, সামরিক-বেসামরিক আমলাতন্ত্র বিএনপি-জামায়াতের ভাবধারায় চলমান ছিল দুদশক, তার সাথে ২২ বছর পরের শেখ হাসিনার তুলনা চলে না। তাই ২০০৮, ২০১৪ এবং ২০১৮ পরপর তিনবার সংসদ নেতা হয়েছেন নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে। সকলের প্রিয় হাসিনা আপা ধীরে ধীরে হয়ে উঠেছেন রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা। মানুষ আস্থা রাখতে চায় তার ওপর , ভরসাও করে। একটু না হয় সময় দেই।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/07/1546872012683.jpg

সবচেয়ে বেশি সময়ের প্রধানমন্ত্রী, সরকার প্রধান, দায়তো তারই বেশি। দলের ভেতরে, দেশবাসীকে খুশি করার দায়তো তারই। আটটি মেগাপ্রকল্পের ভারী বোঝা কাঁধে নিয়েছেন, দুনীর্তির অভিযোগ ছিন্ন করে, খরচা বেড়ে গেলে সামাল দিতে হবে শেখ হাসিনাকেই। কটা দিন না হয়  র্ধৈয্য ধরি। যদি ২০১৯ সালের মধ্যে পদ্মা সেতুর কাজ শেষ না হয় ,এমনকি সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রীর দায়িত্ব অব্যাহত রেখেও সমালোচনা করতে নিশ্চয় কেউ পিছপা হবে না। খুলনা-বরিশালেতো সব সাংসদই মহাজোটের। পিরোজপুরের দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর আসনে জিতেছেন অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম। প্রথমবারের এমপি, তারপরও তাকেই পূর্ণ মন্ত্রী করে দায়িত্ব দিয়েছেন গণপূর্ত ও গৃহায়ন মন্ত্রণালয়ের । বরিশাল শহর নাকি বিএনপির ঘাটি । আগে মেয়র পেয়েছে আওয়ামী লীগের সাদেক আব্দুল্লাহ পরে দলীয় এমপি হলেন জাহিদ ফারুক, তাকেও নেয়া হলো মন্ত্রিসভায়। বরিশাল-ঢাকার সাথে নাকি বুলেট ট্রেনের প্রতিশ্রুতি আছে। যদিও রেলমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন উত্তরের ছাকুরগাও থেকে নির্বাচিত নুরুল ইসলাম সুজনের। রংপুর-বগুড়ার সাথে ট্রেন চলাচল আরো যাত্রীবান্ধব করার গুরু দায়িত্ব তার। আগে পরিকল্পনায় ছিলেন এবার অর্থের দায়িত্ব পেলেন আ হ ম মুস্তফা কামাল, দেখা যাক কেমন চালান তিনি। বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি ব্যবসায়ী টিপু মুন্সী পেয়েছেন বাণিজ্য । দেখা যাক দুই শিল্পপতি-ব্যবসায়ী আর সাবেক আমলা এবং পাঁচ বছরের অর্থ-পরিকল্পনা চালানোর অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধ ভালো মানুষ এম এ মান্নানের সাথে মিলে দেশের প্রবৃদ্ধি শতকরা আট ভাগ হয় কি না ? ৪৭ জনের মন্ত্রিসভায় নতুনই ৩১ জন, অর্ধেকেরও বেশী। কেমন চলে সরকার , দেখা যাক।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/07/1546872041907.jpg

সব কিছুই রাজধানীতে কেন্দ্রীভুত কিন্তু মেট্রোপলিটন এলাকা থেকে ১৫ জনের মধ্যে মাত্র একজন প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার পেয়েছেন শিল্পমন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব, পুর্ণ মন্ত্রী নুরুল মজিদ হুমায়ুনের সহযোগী হয়ে। রাজধানীতে মেট্রো রেলের কাজ যদি সময়মত শেষ না হয়, মিরপুরের ভোগান্তি যদি দ্রুত অবসান না হয় , জবাবদিহি করতে হবে কামাল মজুমদারকে।

বিশ্বের নারী সরকার প্রধানদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সময়ের সরকারের প্রধানের সাফল্যের পালক এখন শেখ হাসিনার ঝুলিতে।ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধি আর জার্মানীর চ্যান্সেলর এঙ্গেরা মার্কেল ছাড়া আর কোনো নারী সরকার প্রধান তিনবার এমন দায়িত্ব পাননি। প্রথম মন্ত্রিসভায় নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব কাউকে না দিয়ে নিজে রেখেছেন। কানাঘুষা চলছে ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদরা শপথ নেয়ার পর , এই দায়িত্ব কোনো একজন নারীকে দেয়া হবে। ওবায়দুল কাদের আর এনামুল হক শামীম ছাড়া ছাড়া বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক কোনো সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক নেই ৪৭ জনের মন্ত্রিসভায়। আওয়ামী লীগের  প্রেসডিয়াম সদস্যদের মধ্যে শুধু ড. আব্দুর রাজ্জাক মন্ত্রিসভায় ফিরে এলেন। চারজন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের একজন দীপু মনিও ফিরেছেন পররাষ্ট্র নয় শিক্ষায়। আর প্রথমবারের মত এমপি হয়ে গুরুত্বপুর্ণ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পেয়েছেন ড. এম এ মোমেন। জাতিসংঘে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করার অভিজ্ঞতা আছে যার। অবশ্য ২০০৮ সালে প্রথমবার সংসদ সদস্য হয়ে পররাষ্ট্র্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছিলেন দীপু মনিও।

গত দুদিনে পাঁচজন প্রথমবারের মত নির্বাচিত সংসদ সদস্যের সাথে বিস্তারিত কথা হয়েছে দুটি টকশোতে। এর মধ্যে একজন মহিবুল হাসান চৌধুরী  নওফেল শপথ নিয়েছেন উপমন্ত্রী হিসেবে। তারা সবাই বিশ্বাস করেন এবারে তাদের জয়ের মূল কারণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ক্যারিশমা। অপর চারজন নতুন এমপি হলেন মাগুড়ার সাইফুজ্জমান শিখর ,বরিশালের শাহ এ আলম, কুমিল্লার সেলিমা আহমদ এবং টাঙ্গাইলের আহসানুল ইসলাম টিটো।  আর তারা এমতের সাথেও একমত যে এবারের সরকারের প্রধান চ্যালেঞ্জ সুশাসন। আর তা অসম্ভব কিছু নয়।

লেখক:  প্রণব সাহা, সম্পাদক, ডিবিসি নিউজ

ই-মেইল: [email protected]

আপনার মতামত লিখুন :