সড়ক দুর্ঘটনা রোধে গণফোরামের ১৪ দফা দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন ড. কামাল হোসেন / ছবি: বার্তা২৪

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন ড. কামাল হোসেন / ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

গণপরিবহনে অনিয়ম, নৈরাজ্য ও সড়ক নিরাপদ করতে ১৪ দফা দাবি জানিয়েছে গণফোরাম। একই সাথে শিক্ষার্থীদের ৮ দফা দাবিও সমর্থন জানিয়েছে দলটি।

শনিবার (২৩ মার্চ) বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে দাবিগুলো উত্থাপন করেন দলটির সদস্য মেজর জেনারেল (অব) আমসা আমিন। ‘সড়কে নৈরাজ্য বন্ধ ও নিরাপদ সড়কের দাবি' শীর্ষক এ সম্মেলনের আয়োজন করে গণফোরাম।

গণফোরামের ১৪ দফা দাবি

গণপরিবহন আইন ন্যায্যতার ভিত্তিতে যুগোপযোগী করে তার সুষ্ঠু প্রয়োগ নিশ্চিত করতে হবে। গণপরিবহন ব্যবস্থাপনা, রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত করতে হবে। দক্ষ চালক তৈরির উদ্যোগ নিতে হবে এবং অদক্ষ চালকদের প্রশিক্ষণের এর মাধ্যমে দক্ষতা বৃদ্ধি করতে হবে। চালক-শ্রমিকদের পারিশ্রমিক ও কর্মঘণ্টা নির্দিষ্টকরণ এবং যাত্রাপথে বিশ্রামের ব্যবস্থা করতে হবে। সড়ক দুর্ঘটনায় দোষী চালক ও মালিকদের সাজা নিশ্চিত করতে হবে।

গণপরিবহন মালিকানার পরিবর্তে ফ্যাঞ্চাইজি ভিত্তিতে পরিচালনা করতে হবে। মেয়াদ উত্তীর্ণ সকল গণপরিবহন রাস্তা থেকে প্রত্যাহার করতে হবে। অদক্ষ চালকদের বিরুদ্ধে ধারাবাহিক অভিযান চালু রাখতে হবে। গণপরিবহনের জন্য আলাদা লেন করে, সেবার মান বাড়াতে হবে। শহরের মধ্যে অবস্থিত সকল সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালের সামনে সড়ক নিরাপত্তার ব্যবস্থা রাখতে হবে। সড়ক মহাসড়কের পাশে অবস্থিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে ফুটওভার ব্রিজ ও স্পিড ব্রেকার তৈরি করতে হবে। গণপরিবহন চাঁদাবাজি বন্ধ করতে হবে।

এছাড়া সড়ক দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য রেগুলেটরি বডি নিয়ন্ত্রিত সরকারি ফান্ডের ব্যবস্থা রাখতে হবে। পরিবহন কৌশল এবং সড়ক সেতু নির্মাণের ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনে জন স্বার্থকে প্রাধান্য দিতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘দায়িত্বে অবহেলার কারণে সড়ক দুর্ঘটনা বাড়ছে। দায়িত্বে অবহেলায় কারা দায়ী সেটা চিহ্নিত করতে হবে, প্রত্যেকবারই দুর্ঘটনার পর বলা হয় যে, যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে, কিন্তু কোনোদিনই যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। প্রতিবছরই সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বাড়ছে, বাড়তে বাড়তে একটা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের এ দাবিগুলো সরকার এবং সংশ্লিষ্ট যারা আছেন তারা গুরুত্ব দেবেন আশা করি। এ নিয়ে সংসদে বিস্তারিত আলোচনা হওয়া দরকার। সেখান থেকে আদেশ দেওয়া উচিত যে, সরকার ও পুলিশ যাদের যে দায়িত্ব দেওয়া আছে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, দলটির সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফা মোহসিন মন্টু, নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, সদস্য অধ্যাপক আবু সাঈদ, হোসেন রশিদ প্রমুখ।

আরও পড়ুন

সড়ক দুর্ঘটনা দায়িত্বহীনতার ফসল: ড. কামাল

আপনার মতামত লিখুন :