জাপায় কোনো বিভক্তি নেই: রওশন এরশাদ 

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যুব সংহতির প্রতিষ্ঠাবাষির্কীতে বক্তব্য রাখছেন বেগম রওশন এরশাদ/ ছবি: সংগৃহীত

জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যুব সংহতির প্রতিষ্ঠাবাষির্কীতে বক্তব্য রাখছেন বেগম রওশন এরশাদ/ ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতীয় পার্টির (জাপা) সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান বেগম রওশন এরশাদ বলেছেন, ‘জাতীয় পার্টিতে কোনো দ্বিধা-বিভক্তি নেই। জাতীয় পার্টির সবাই হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আছে।’ 

মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) দুপুরে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যুব সংহতির ৩৬তম প্রতিষ্ঠাবাষির্কীর সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন। 

রওশন বলেন, ‘সরকারকেই আগুনের প্রকৃত কারণ খতিয়ে দেখতে হবে। দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে।’

এরশাদের মামলা প্রসঙ্গে বলেন, ‘হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ দক্ষিণ এশিয়ার উন্নয়নের শ্রেষ্ঠ রূপকার, তাঁকে দমিয়ে রাখার জন্যই তাঁর নামে রাজনৈতিক মামলা দেওয়া হয়েছিল।’

আগামী দিনে জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় নিতে দলকে আরও শক্তিশালী করতে জাতীয় যুব সংহতির নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। 

জাতীয় পার্টির ৯ বছরের শাসনামলের কথা উল্লেখ করে বেগম রওশন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু একটি স্বাধীন দেশ উপহার দিয়েছেন। আর দেশের মানুষের কাছে স্বাধীনতার প্রকৃত স্বাদ তুলে দিয়েছেন এরশাদ।’ 

বেকারত্ব দূর করতে চাকরির বয়সীমা ৩৫ বছর করা, শিল্প বিকাশের মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও গ্যাসের দাম কমানোর দাবিও জানান বেগম রওশন এরশাদ।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য জিএম কাদের বলেন, ‘জাতীয় পার্টি হচ্ছে দেশের ইতিবাচক রাজনীতির মূল নিয়ামক শক্তি। আর জাতীয় পার্টির মূল শক্তি হচ্ছে জাতীয় যুব সংহতি।’ জাতীয় পার্টিকে আরো শক্তিশালী করতে যুব সংহতির নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

জাতীয় যুব সংহতির সভাপতি আলমগীর শিকদার লোটনের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যরিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, জাতীয় যুব সংহতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এটিএম রফিকুল ইসলাম হাফিজ, 

প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপিকা মাসুদা এম রশীদ চৌধুরী, ফকরুল ইমাম, অ্যাড. মুজিবুল হক চুন্নু, সৈয়দ মোহাম্মদ আব্দুল মান্নান, মীর আবদুস সবুর আসুদ, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী, অ্যাড. মোঃ রেজাউল ইসলাম ভুইয়া প্রমুখ।

যুব সংহতির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে কাকরাইল কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সকাল ৯টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল ১০টায় সমাবেশ ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়।

আপনার মতামত লিখুন :

এ সম্পর্কিত আরও খবর