সরকারের পক্ষে বৈধতা অর্জন সম্ভব নয়: মওদুদ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, সরকারপ্রধানসহ তাদের নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন সময় বলেছেন- বিএনপি থেকে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা যেন সংসদে ফিরে আসেন। তারা সংসদে যাক আর না যাক, সংসদের বৈধতা কখনই অর্জন করা সম্ভবপর হবে না।

দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও তার সুচিকিৎসার দাবিতে শনিবার (২৭ এপ্রিল) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী মহিলাদল আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

ওই কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মওদুদ আহমদ বলেন, 'জাহিদুর রহমান সংসদে গিয়েছেন। যদি আরো দু'একজন যান, তাহলে সরকারের কী সুবিধা হবে, জানি না। তবে দেশের মানুষ জানবে, এর কারণে এই সংসদের বৈধতা কখনই আসবে না এবং আসতে পারে না। কারণ এই সরকারে জনগণের প্রতিনিধি সংগঠিত হয়নি। সংসদে জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটে নাই। ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন কোনো ক্রমেই এই সংসদকে বৈধতা দেয় না এবং দিতে পারে না। ওই নির্বাচনের কারণে দেশে একটা শূন্যতা বিরাজ করছে। এই শূন্যতা সরকারের জন্য ভয়ংকর, দেশের মানুষের জন্যও ভয়ংকর।'

সাবেক এই আইনমন্ত্রী বলেন, ‘রাজনীতিতে কখনোই শূন্যতা বিরাজমান অবস্থায় থাকে না। সুতরাং অবিলম্বে একটা নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন এবং এই নির্বাচন দিলেই শূন্যতা থাকবে না। আপনার যে ভয়ংকর অবস্থায় আছেন, তা থেকে মুক্তি পাবেন।'

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Apr/27/1556357009784.jpg

বিএনপির অন্যতম এই নীতিনির্ধারক আশা প্রকাশ করে বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি আজকে না হোক, কালকে হবে। সম্মানের সাথেই তার মুক্তি হবে। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন- প্যারোলের আবেদন করলে মুক্তি বিবেচনা করা যায়। প্যারোলের কথাই যদি বলেন, তাহলে আপনার আইনজীবীদের বলে দেন- তারা যেন জামিনের বিরোধিতা না করে। তাহলে তো তিনি জামিনেই মুক্তি পেতে পারেন। প্যারোলের কোনো প্রয়োজন হবে না।

মওদুদ বলেন, আজকে স্পষ্ট যে, এই সরকার চায় না খালেদা জিয়ার মুক্তি হোক। কারণ তারা জানে, বেগম জিয়ার মুক্তি মানে গনতন্ত্রের মুক্তি, দেশে গনতন্ত্র ফিরে আসবে এবং একদলীয় শাসনের অবসান ঘটবে, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ফিরে আসবে। সরকারের আচরণ, তারা জাতীয়তাবাদী দলকে ভাঙতে চায় না, নিঃশেষ করে দিতে চায়।

মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন- মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, সাধারণ সম্পাদক সুলতান আহমেদ, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খান প্রমুখ।