আজই শপথ নিচ্ছেন বিএনপির নির্বাচিতরা

শাহজাহান মোল্লা, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
বিএনপির পতাকা, ছবি: সংগৃহীত

বিএনপির পতাকা, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সব জল্পনা কল্পনা শেষে একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্য হিসেবে শপথ নিতে যাচ্ছেন বিএনপির নির্বাচিতরা। শেষ মুহূর্তে দলীয় সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছেন। দুপুর ২টার পর দলের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে বলে জানা গেছে। তবে যাই হোক, আজই হয়তো শপথ নেবেন দলটির একাধিক সদস্য।

সোমবার (২৯ এপ্রিল) সন্ধ্যার মধ্যে শপথগ্রহণ হতে পারে। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তাঁর কার্যালয়ে শপথবাক্য পাঠ করাবেন। তবে বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে কেউ জানাননি।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, অত্যন্ত গোপনীয়তার সঙ্গে তারা শপথ নেবেন। সেক্ষেত্রে আগে থেকে চিঠি না দিয়ে তাৎক্ষনিকভাবে স্পিকারের কাছে অনুরোধ জানিয়ে শপথ নিতে পারেন।

এরইমধ্যে শপথ নেওয়ার জন্য ধানের শীষ প্রতীকে বিজয়ী তিন প্রার্থী ঢাকায় এসেছেন। তারা নিজ আসনগুলোতে উপনির্বাচনের সুযোগ দিতে চান না। যেহেতু দলের চাপ রয়েছে শপথ না নেওয়ার জন্য, তাই আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি নাও দিতে পারেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে বিএনপির বিজয়ী প্রার্থী মো. আমিনুল ইসলাম বার্তা২৪.কমকে বলেন, "দলের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছি। দল বললেই চলে আসব। আমরা প্রস্তুত আছি।’’

একাদশ সংসদ নির্বাচনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আটজন বিজয়ী হোন। তাদের মধ্যে গণফোরামের দু'জন। বাকি ছয়জন বিএনপির। নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনে শুরু থেকেই নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করে আসছে দলটি। দলীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শপথ না নিতে অনড় তারা।

তবে যেহেতু সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতায় ৩০ এপ্রিল শেষ হয়ে যাচ্ছে তাদের শপথের সময়সীমা, তাই সুযোগ হাত ছাড়া করতে নারাজ বিএনপির বিজয়ী প্রার্থীরা। সংবিধান অনুযায়ী সংসদ নির্বাচনের পর প্রথম অধিবেশনের প্রথম দিন থেকে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে কেউ যদি শপথ গ্রহণ না করেন তাহলে তার ওই আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। বিধান অনুযায়ী আজই শেষ হচ্ছে সেই সময়সীমা। পরে নির্বাচন কমিশন (ইসি) ওই আসনে উপনির্বাচনের আয়োজন করে থাকে। তবে স্পিকারের কাছে যৌক্তিক কারণ দেখিয়ে সময় চাইলে বাড়তে পারে সময়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Apr/29/1556524721366.jpg
চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের মো. আমিনুল ইসলাম ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের মো. হারুনুর রশীদ, ছবি: সংগৃহীত

 

একাদশ সংসদে বিএনপির নির্বাচিতরা হলেন- বগুড়া-৬ আসনে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বগুড়া-৪ আসনে মোশাররফ হোসেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে মো. আমিনুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনে মো. হারুন অর রশীদ, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনে জাহিদুর রহমান ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে আবদুস সাত্তার ভূঁইয়া।

তাদের মধ্যে ঠাকুরগাঁও-৩ আসনে জাহিদুর রহমান দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে গত ২৫ এপ্রিল শপথ নিয়েছেন। যদিও পরে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। অন্যরাও বহিষ্কার আতঙ্কে আছেন। তাই তারা চাইছেন মহাসচিবসহ একত্রে শপথ নেওয়া যায় কি-না?

এ বিষয় জানতে চাইলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের মো. হারুনুর রশীদ বার্তা২৪.কমকে বলেন, "আমরাও খুব চাপের মধ্যে আছি, দলও চাপে আছে। সবাই চাপের মধ্যে। চাপ কোনোটা বেশি, কোনোটা কম। আমরা তো অপেক্ষায় আছি। আমরা তো আমাদের অভিমত দলকে জানিয়েছি। দলতো জানাবে ২টার পরে। আজকে সময় আছে। সংসদ অধিবেশন চলাকালীন যেন কোনো সময় যেতে পারি। সন্ধ্যার পরেও যেতে পারি।"

আরও পড়ুন: সোমবার যে কোনো সময় বিএনপির নির্বাচিত বাকিদের শপথ!

আরও পড়ুন: বিএনপি থেকে বহিষ্কার জাহিদুর রহমান

আপনার মতামত লিখুন :