Alexa

২০ দলীয় জোট ছাড়লো পার্থের বিজেপি

২০ দলীয় জোট ছাড়লো পার্থের বিজেপি

আন্দালিব রহমান পার্থ, ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (বিজেপি) চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থ ২০ দলীয় জোট থেকে বের হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। সোমবার (৬ মে) রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজেপি মহাসচিব আবদুল মতিন সাউদও বার্তা২৪.কমকে জোট ছাড়ার তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বার্তা২৪.কমকে তিনি বলেন, বিএনপি আমাদের অবমূল্যায়ন করেছে। এছাড়া তারা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে আমাদের চেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। তাই আমরা জোট ছাড়ছি।

আবদুল মতিন সাউদ বলেন, আমরা বিএনপি থেকে অবজ্ঞা অবহেলার শিকার হয়েছি। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফল বর্জন করার পর তারা সংসদে যোগ দিয়েছে। অথচ বলে আসছে যে, তারা সংসদে যাবে না। এ বিষয়ে তারা আমাদের কিছু বলেওনি। ২০ দলের সঙ্গে কোনো আলোচনাই করেনি।

নতুন কোনো জোটে তারা যাবেন কি-না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘না, আমরা কোনো জোটে যাচ্ছি না।’

গণমাধ্যমে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিজেপি ১৯৯৯ সাল থেকে চার দলীয় জোটে এবং পরবর্তীতে ২০ দলীয় জোটে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হওয়ার পর থেকে ২০ দলীয় জোটের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড ক্রমশই স্থবির হয়ে পড়ে। ঐক্যফ্রন্টমুখী হওয়ায় ২০১৮ সালে ৩০ ডিসেম্বরের জাতীয় নির্বাচনের আগে এবং পরবর্তীতে সরকারের সঙ্গে সংলাপসহ বহু গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে ২০ দলীয় জোটের বিএনপি ছাড়া অন্য কোনো দলের সম্পৃক্ততা ছিল না। কেবল সংহতি ও সহমত পোষণের জন্য ২০ দলীয় জোটের সভা ডাকা হতো। ৩০ ডিসেম্বরের প্রহসন ও ভোট ডাকাতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পর ২০ দলীয় জোটের সবার সম্মতিক্রমে এ নির্বাচনকে প্রত্যাখান করা হয়। কিন্তু পরবর্তীতে প্রথমে ঐক্যফ্রন্টের দু’জন এবং পরে বিএনপির সম্মতিতে দলটির চারজন সংসদ সদস্য শপথ নেওয়ায় বিজেপিও হতবাক হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়, শপথ নেওয়ার এ সিদ্ধান্তের সঙ্গে বিএনপি ছাড়া ২০ দলের অন্য কোনো দলের সম্পৃক্ততা নেই। বিজেপির ধারণা, এ শপথের মাধ্যমে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট ৩০ ডিসেম্বরের প্রহসনের নির্বাচনকে প্রত্যাখান করার নৈতিক অধিকার হারিয়েছে। এ অবস্থায় ২০ দলীয় জোটের বিদ্যমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে বিজেপি ২০ দলীয় জোটের সব রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে বেরিয়ে আসছে।

আপনার মতামত লিখুন :