Alexa

বগুড়া-৬ উপনির্বাচন: খালেদার বিকল্প সিরাজ!

বগুড়া-৬ উপনির্বাচন: খালেদার বিকল্প সিরাজ!

ছবি: সংগৃহীত

বগুড়া-৬ আসনে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামী ২৪ জুন। বগুড়া সদর এলাকা নিয়ে গঠিত এ আসনে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টি তাদের একক প্রার্থী চূড়ান্ত করলেও বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন তিনজন।

নির্বাচন কমিশন থেকে যাচাই বাছাইয়ের পর আলোচনা করে দল একজনকে চূড়ান্ত করবে বলে জানা গেছে। বিএনপির মনোনয়ন পাওয়া তিনজনের মধ্যে গোলাম মোহাম্মদ সিরাজই চূড়ান্ত মনোনয়ন পেতে যাচ্ছেন বলে দলের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

দলের একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিএনপি এই আসনটিকে কোনোভাবেই ছাড় দেবে না। কেননা দীর্ঘদিন ধরে এই আসনে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নির্বাচিত হয়ে আসছেন। বিএনপি পরাজিত হলে খালেদা জিয়া ও দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হবে। কেন্দ্রীয় নেতারাও চেষ্টা করছেন যত দ্রুত সম্ভব অভ্যন্তরীণ সমস্যা কাটিয়ে একক প্রার্থীকে বিজয়ী করতে কাজ করার। দল যাকেই মনোনয়ন দিক না কেন সবাই যাতে দলের হয়ে কাজ করে এমনটাই প্রত্যাশা করছেন তারা।

দলের বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, সবদিক বিবেচনায় গোলাম মোহাম্মদ সিরাজকেই চূড়ান্ত মনোনয়ন দেয়ার ব্যাপারে ইতিবাচক দল। অর্থবিত্ত ও দল পরিচালনার দক্ষতা অনুযায়ী তিনি অধিক যোগ্য। যার কারণে দল তাকেই মনোনয়ন দেবে।

বগুড়া-৬ আসনটি বিএনপির ঘাটি হিসেবে পরিচিত। যেখান থেকে দলীয় প্রধান খালেদা জিয়া দীর্ঘদিন ধরে নির্বাচিত হয়ে আসছেন। সবশেষ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দুর্নীতির একটি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় তিনি প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে পারেননি। সেখানে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অংশগ্রহণ করে নির্বাচিত হন। বিএনপির নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথ নিলেও তিনি শপথ নেননি। ফলে আসনটি শূন্য হয়।

এই আসনটিতে উপ-নির্বাচনে অংশ নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন তারেক রহমানসহ দলের সিনিয়র নেতারা। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান প্রধান খালেদা জিয়ার নামে মনোনয়ন ফরম নিতে দলের নেতা-কর্মীদের নির্দেশ দেন। এতে খালেদা জিয়া রাজী হননি। খালেদা জিয়া রাজী না হওয়ায় আসনটিতে মনোনয়ন পেয়েছেন বগুড়া-৫ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ। তিনি বগুড়া জেলা বিএনপির আহ্বায়ক।

একই আসনে বগুড়া পৌরসভার মেয়র ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট এ কে এম মাহবুবর রহমান ও জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি রেজাউল করিম বাদশা মনোনয়ন দিয়েছে দল। নির্বাচন কমিশনে বাছাই প্রক্রিয়ায় কেউ বাদ পড়লে যাতে বিকল্প প্রার্থী দিতে পারে সেজন্য দল একাধিক প্রার্থী রাখা হয়েছে।

এদিকে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন এস এম টি জামান নিকেতা। যিনি বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে মনোয়ন পেয়েছেন দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. নুরুল ইসলাম ওমর।

বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি বার্তা২৪.কমকে জানান, ‘কৌশলগত কারণে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শপথ নেননি। এখন দল যেহেতু নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আমাদের সকলের উচিত হবে নিজেদের মধ্যে মনোমালিন্য দূর করে দলের জন্য কাজ করা।’

উল্লেখ্য,গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৬ আসনে আওয়ামী লীগের কোনো প্রার্থী ছিল না। মহাজোট থেকে প্রার্থী ছিলেন জাতীয় পার্টির নুরুল ইসলাম ওমর। বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকে এ আসনে নির্বাচন করে বিজয়ী হন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের বাড়ি এ আসনে। ১৯৯১ সাল থেকে বরাবরই ওই আসন থেকে নির্বাচিত হয়ে আসছিলেন খালেদা জিয়া।

 

 

আপনার মতামত লিখুন :