প্রস্তাবিত বাজেট প্রত্যাখ্যান করেছে গণফোরাম



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
প্রস্তাবিত বাজেটের প্রতিক্রিয়ায় সংবাদ সম্মেলনে গণফোরাম/ ছবি: বার্তা২৪.কম

প্রস্তাবিত বাজেটের প্রতিক্রিয়ায় সংবাদ সম্মেলনে গণফোরাম/ ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সম্প্রতি ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার। এই প্রস্তাবিত বাজেটকে সম্পূর্ণ রূপে প্রত্যাখ্যান করেছে গণফোরাম।

গণফোরাম মনে করে, দেশের জনগণের স্বার্থহানি ঘটিয়ে গুটি কয়েক ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক স্বার্থান্বেষী ব্যক্তির স্বার্থ হাসিলের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

শনিবার (১৫ জুন) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলন করে গণফোরাম। সেখানে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘সরকার ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটকে স্মার্ট বাজেট বলে অবিহিত করছে। যার মানে দেশের প্রকৃত সমস্যা থেকে জনগণের মনোযোগ সরানোর জন্য চটকদার বাড়তি কিছু যুক্ত করা হয়েছে। এই বাজেটে ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক বৈষম্য, দারিদ্র্য ও বেকারত্বের মতো গুরুতর সমস্যা মোকাবিলার কোনো উদ্যোগ নেই।’

প্রস্তাবিত বাজেটকে দুটি বিবেচনায় হতাশাজনক মনে করে গণফোরাম এমন তথ্য জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অর্থনীতির সকল সূচকই নির্দেশ করছে যে, অর্থনীতিতে শীঘ্রই নিকট অতীতের সামষ্টিক অর্থনৈতিক অব্যবস্থাপনার নেতিবাচক প্রভাব আসন্ন। এই বাজেটে অর্থনীতি এখন সত্যিকারের যে বিপদের সম্মুখীন, সে সম্পর্কে অজ্ঞতা প্রকাশ পেয়েছে।’

রেজা কিবরিয়া বলেন, ‘এটি জনগণের বাজেট নয়। এটি একটি অদূরদর্শী ও দুর্বলভাবে প্রণীত বাজেট, যাতে দেশের প্রকৃত সমস্যা মোকাবিলার কোনো চেষ্টা নেই। বর্তমান দেশকে যারা লুটেপুটে খাচ্ছে ও যারা অবৈধভাবে অর্জিত অর্থ বিদেশে পাচার করছে বাজেটটিতে তাদের সুবিধার জন্য তৈরি হয়েছে। বাজেটটি যারা প্রণয়ন করেছে তাদের এ দেশের ভবিষ্যত নিয়ে কোনো চিন্তা নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই প্রতিনিধিত্বহীন ও অনির্বাচিত সরকারের বাজেট নাগরিকদের ইচ্ছার প্রতিফলন নয়। এটি যে দেশের প্রয়োজনীয়তা পূরণের লক্ষ্যে প্রণয়ন করা হয়নি, এটাতে অবাক হওয়ার কোনো কারণ নেই।’

সত্যিকারের প্রতিনিধিত্বশীল সরকার গঠনের লক্ষ্যে অনতিবিলম্বে দেশে একটি অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন আয়োজন করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করে গণফোরাম।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন, নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আআমসা আমীনসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।