প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য সত্যের অপলাপ: মির্জা ফখরুল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

  • Font increase
  • Font Decrease

পুলিশের হেফাজতে নির্যাতন ও মৃত্যু হয় না, বিবিসি বাংলাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্য সত্যের অপলাপ ছাড়া আর কিছুই না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বুধবার (০৭ আগস্ট) বিকেলে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপচারিতায় প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎকার প্রসঙ্গে এ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, “এটা তো পরিষ্কার যে, প্রধানমন্ত্রী সত্য কথা বলেননি। আমাদের পত্র-পত্রিকার প্রতিবেদন, মানবাধিকার নিয়ে কাজ করা যে গ্রুপগুলো রয়েছে তাদের রিপোর্ট আমরা পেয়েছি। এমনকি অ্যামেনেস্টি ইন্টান্যাশনাল, হিউম্যান রাইট ওয়াচ-এর রিপোর্টে আমরা দেখেছি—প্রতি বছর এখানে জুডিশিয়াল কাস্টডিতে ৪০০ থেকে ৭০০ মানুষের মৃত্যু হয়। বিশেষ করে গত বছর চারশোর উপরে তথাকথিত বন্দুকযুদ্ধের নামে জুডিশিয়াল কাস্টডিতে হত্যা করা হয়েছে।”

বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, “হেফাজতে যে টর্চার, এটা তো কমন ব্যাপার। পত্র-পত্রিকায় ছবি এসেছে, এর আগেও দেখেছেন ফ্যানের সিলিংয়ের সঙ্গে ঝুলিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। আমাদের অনেক নেতা-কর্মী আছেন যাদের পায়ে বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করা হয়েছে। এগুলো তো আপনারা সবাই জানেন। তিনি (প্রধানমন্ত্রী) অবলীলায় অস্বীকার করলেন, এটা (পুলিশ হেফাজতে মৃত্যু) হয় না। আমার মনে হয় এটা সঠিক নয় তো বটেই, এটা সত্যের অপলাপ ছাড়া আর কিছুই না।”

মির্জা ফখরুল বলেন, “আপনারা দেখেছেন, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আলোকচিত্রী শহিদুল আলমকে গ্রেফতার করে অত্যাচার করা হয়েছে, কাস্টডিতে নেওয়ার পরে অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনকভাবে তার সঙ্গে নির্মম আচরণ করা হয়েছে।”

‘মিডিয়ার কারণে ডেঙ্গু সমস্যা নিয়ে জনগণের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হচ্ছে’— প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ওনারা সবসময়ই বাস্তব জিনিসগুলোকে অ্যাভয়েড করার চেষ্টা করেছেন। বাস্তব সত্য যেটা সেটাকে স্বীকার করতে ওনারা সাহস পান না। এখানে মিডিয়া ছিল বলে তো ডেঙ্গুটা সামনে এসেছে। নাহলে ডেঙ্গুটা চেপে যেত সবাই। বুঝতে পারত না কীভাবে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে ডেঙ্গু। আজকে প্রতিটি মানুষ অ্যাফেক্টেড। যার ডেঙ্গু হয়েছে তিনি ভয়ে আছেন, তিনি দৌড়াচ্ছে। আর যার হয়নি তিনিও দৌড়াচ্ছেন।”

মির্জা ফখরুলসহ বিএনপির শীর্ষ চার নেতার বিরুদ্ধে দেওয়া এবি সিদ্দিকীর মামলা সম্পর্কে জানতে চাইলে বিএনপি মহাসচিব বলেন বলেন, “এ ধরনের মিথ্যা মামলার উদ্দেশ্য হচ্ছে—আমাদের ওপর রাজনৈতিক চাপ সৃষ্টি করে আমাদের রাজনৈতিক-গণতান্ত্রিক যে কার্যক্রম আছে তা থেকে দূরে সরিয়ে রাখা। দেশে এমন একটা রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টি করা, কোনো কারণ ছাড়াই। ওই মামলাটি সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে করা হয়েছে।”

আপনার মতামত লিখুন :