বরিশাল ও রাজশাহীতে আ.লীগ জিতবে, প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে সিলেটে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

তিন সিটির মধ্যে বরিশাল ও রাজশাহীতে আওয়ামী লীগের বড় জয়ের কথা সম্ভাবনা দেখছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি তার ফেসবুকে পেইজে জার্নালে সিলেটে কঠোর প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস দিয়েছেন।

রোববার (২৯ জুলাই) দুপুর তিনসিটি নির্বাচন নিয়ে পরিচালিত এক জরিপের ফলাফল নিজের ফেইসবুক পেইজে এক পোস্টে তিনি বলেন,“জরিপ ও নির্বাচনের ফলাফলে কিছুটা তফাৎ হতে পারে। কিন্তু আমি আত্মবিশ্বাসী যে বরিশাল ও রাজশাহীতে আওয়ামী লীগ বিশাল ব্যবধানে জয়ের পথে। যদিও সিলেটে আমরা কিছুটা এগিয়ে আছি, এই মুহূর্তে আসলে কাউকেই বিজয়ী হিসেবে দেখার সুযোগ নেই।”

পুরো জুলাই মাসে তিনসিটির বরিশাল, রাজশাহী ও সিলেটের ভোটারদের মধ্যে এই জনমত জরিপ পরিলাচনা করেছে রিসার্চ ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের (আরডিসি) গবেষণা সংস্থা।

এই জরিপে মধ্যে বরিশালের আওয়ামী লীগের প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ ও রাজশাহীতে এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন বড় ব্যবধানে এগিয়ে আছেন। আর সিলেটে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বদর উদ্দীন কামরান বিএনপির আরিফুল হক চৌধুরীর চেয়ে তুলনা মূলক কম এগিয়ে আছেন।

বিএনপি জনপ্রিয়তা নেই মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘বিএনপি অনেক ধরণের অভিযোগ করতে থাকে, কিন্তু আসল কথা হচ্ছে তাদের কোনো জনপ্রিয়তাই নেই। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের জনসমর্থন দিন দিন বাড়ছে। নির্বাচনী লড়াইয়ে বিএনপি এখন আওয়ামী লীগের জন্য কোনো প্রতিদ্বন্দ্বীই না।’

দলীয় নেতাকর্মী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ও নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাদের প্রতি সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কারণ আমাদের আশংকা বিএনপি ভোট কেন্দ্র দখল করে জাল ভোট দিয়ে সেই দায় আমাদের উপর চাপানোর চেষ্টা চালাবেন।আপনারা সবাই বিএনপি নেতাদের এইরূপ ষড়যন্ত্রের ফোনালাপ সম্প্রতি শুনেছিলেন গাজীপুর নির্বাচনের সময়।’

নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার বিএনপির একমাত্র কৌশল মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘বিএনপির প্রার্থীরা যতই ভোটারদের কাছে যান, ততই তারা বুঝতে পারেন তাদের দল বাংলাদেশের মানুষদের থেকে কতটা দূরে সরে গিয়েছেন। তাই আওয়ামী লীগকে বিতর্কিত করে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করাই তাদের একমাত্র কৌশল।’

আপনার মতামত লিখুন :