তড়িঘড়ি করে সড়ক পরিবহন খসড়া আইন অনুমোদন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

 

ঢাকা: মন্ত্রীপরিষদ তড়িঘড়ি করে সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ খসড়া অনুমোদন দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, এটি শুভঙ্করের ফাঁকি। প্রস্তাবিত সড়ক পরিবহন আইনে দুর্বৃত্ত ও গডফাদাররা ধরা ছোঁয়ার বাইরে থাকবে।

মঙ্গলবার (৭ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

এ আইন নিরাপদ সড়কের জন্য পর্যাপ্ত নয় বলেও মন্তব্য করেন রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, অনুমোদিত খসড়া আইনে গণপরিবহনে নিরাপত্তা ও সুশৃঙ্খল পরিবেশ ফিরিয়ে আসবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে।

সড়ক পরিবহন খসড়া আইন-২০১৮ আদৌ সংসদে পাস হবে কি না তা নিয়ে নাগরিক সমাজ সন্দেহ প্রকাশ করেছেন বলে বিএনপির এই যুগ্ম মহাসচিব উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য আতঙ্কজনক, উদ্বেগজনক ও ভয়ঙ্কর ইঙ্গিতবাহী ছিল। মানে ঢিল ছোঁড়া হচ্ছে, আওয়ামী লীগ অফিসকে লক্ষ্য করে তারা পাথর ছুঁড়ে মেরেছে এবং জানালা-দরজার কাঁচ ভেঙে একাকার করেছে। একটা ঘটনা দেখে আপনারা বুঝতে পারেন। বিডিআর গেটে হামলা, সেখানে গুলি বর্ষণ হচ্ছে, এই অস্ত্রটা কোথা-থেকে আসল ? কারা গুলি করল? "

প্রধানমন্ত্রীর দেয়া এমন বক্তব্যকে পাগলের প্রলাপ উল্লেখ করে রিজভী আহমেদ বলেন, পুলিশ যে অস্ত্রধারীদের পাহারা দিয়ে ছাত্রদের দিকে গুলি করাচ্ছে, লাঠি পেটা করাচ্ছে তারা কি বিরোধী দলের লোক হতে পারে ? এটা কি পাগলের প্রলাপ ছাড়া আর কিছু নয়।

তিনি বলেন, পুলিশ, ছাত্রলীগ‌ আর যুবলীগে একাকার। এটা দেশ-বিদেশের গণমাধ্যমে ওঠেছে। অথচ মিথ্যাচার করে তাদের রক্ষার চেষ্টা করছেন। মনে রাখবেন, দেশ-বিদেশের মানুষ ও গণমাধ্যমের চোখ ঝাপসা হয়ে যায়নি। অস্ত্রধারী ছাত্রলীগের সোনার ছেলেদের নাম ধরে ধরে ছবি প্রকাশ হয়েছে।

'সুতরাং ছাত্রলীগের হাতে কিভাবে এ অস্ত্র আসল, কিভাবে তারা গুলি করলো, প্রাধনমন্ত্রী দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাহেবকে জিজ্ঞাসা করুন।'

আপনার মতামত লিখুন :