কেন খাবেন জাম্বুরা?

ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইফস্টাইল
উপকারি ফল জাম্বুরা। ছবি: সংগৃহীত

উপকারি ফল জাম্বুরা। ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাজার ঘুরলেই পাওয়া যাচ্ছে জাম্বুরা।

সাইট্রাস ঘরানার এই ফলটির জনপ্রিয়তা রয়েছে কমবেশি সকলের মাঝেই। জাম্বুরার বৈজ্ঞানিক নাম সাইট্রাস ম্যাক্সিমা (Citrus maxima). কারণ সাইট্রাস ঘরানা ফলের মাঝে জাম্বুরা হলো সবচেয়ে বড় আকারের ফল।

টক এই ফলটি খেতে যেমন চমৎকার, তেমনই চমকপ্রদ তার স্বাস্থ্য গুণ। পছন্দনীয় এই ফলটি সহজলভ্য হলেও, তার উপকারিতা সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা নেই অনেকের। আজকের ফিচারে তুলে ধরা হলো, কেন খাওয়া প্রয়োজন পরিচিত এই ফলটি।

খাদ্য পরিপাকে সাহায্য করে

বেশিরভাগ সাইট্রাস ঘরানার ফলেই থাকে উচ্চ মাত্রার আঁশ। জাম্বুরাও তার ব্যতিক্রম নয়। একটি মাঝারি আকৃতির জাম্বুরা থেকে পুরোদিনের প্রায় ৩০ শতাংশ আঁশ পাওয়া যায়। দ্রবণীয় এই খাদ্য আঁশ কোষ্ঠ্যকাঠিন্য কিংবা ডায়রিয়ার মতো পেটের সমস্যাকে দূর করে থাকে।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে

জাম্বুরাতে থেকে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম পাওয়া যায়। একটি মাঝারি আকৃতির জাম্বুরা থেকে পুরো দিনের প্রায় ৪০ শতাংশ পটাশিয়াম পাওয়া সম্ভব। প্রাকৃতিক এই উপাদানটি রক্ত চলাচলের বাধা দূর করে। ফলে বিভিন্ন প্রত্যঙ্গে রক্ত চলাচল ও অক্সিজেন পরিবহণ সহজ হয়ে যায়। রক্ত চলাচল স্বাভাবিক থাকার ফলে হৃদযন্ত্রের উপর চাপ কম পড়ে। এতে করে হৃদযন্ত্র সুস্থ থাকে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Oct/04/1538629607660.jpg

ওজন কমাতে সহায়ক

অন্যান্য সাইট্রাস ফলের মতো জাম্বুরাতেও রয়েছে ফ্যাট বার্নিং এনজাইম। যা আক্ষরিক অর্থেই ওজন কমাতে সাহায্য করে। এই এনজাইমকে বলা হয় কার্নিটিন প্যালিটোলো-ট্রান্সফেরাস (Carnitine palmitoyl-transferase). এই এনজাইমটি সচরাচর অন্যান্য খাদ্য উপাদানে পাওয়া যায় না।

হাড় সবল রাখে

উপরেই বলা হয়েছে জাম্বুরা থেকে পটাশিয়াম পাওয়া যায়। পটাশিয়াম হাড় সুস্থ ও সবল রাখতে সাহায্য করে। পটাশিয়াম গ্রহণের ফলে হাড়ের ঘনত্ব সঠিক মাত্রায় থাকে এবং হাড় শক্ত হয়।

বয়সের ছাপ প্রতিরোধ করে

স্বাভাবিকভাবে যেকোন সাইট্রাস ফলেই ভিটামিন-সি পাওয়া যাবে। জাম্বুরাও তার ব্যতিক্রম নয়। এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-সি ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকে, যা ক্ষতিকর রেডিক্যালের নেতিবাচক প্রভাবকে দূরে রাখতে সাহায্য করে। ফ্রি রেডিক্যালের প্রভাবে ত্বকে বয়সের ছাপ দেখা দেয় খুব দ্রুত। ভিটামিন-সি এই প্রক্রিয়াকে ধীর করে দিতে কাজ করে।

চুলের জন্য উপকারি

উচ্চমাত্রায় পটাশিয়াম, ভিটামিন-সি ও উপকারি অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের পাশাপাশি জাম্বুরা থেকে ভিটামিন-বি১ ও জিংক পাওয়া যায়। এছাড়াও চুলের জন্য উপকারি কিছু উপাদান থাকে জাম্বুরাতে, যা চুল সুস্থ রাখতে, চুলের গোড়া শক্ত রাখতে ও চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

আপনার মতামত লিখুন :