Alexa

ডিমের কুসুমের রঙ ভিন্ন হয় কেন?

ডিমের কুসুমের রঙ ভিন্ন হয় কেন?

ডিমের কুসুমের রঙ ভিন্ন হতেই পারে, ছবি: সংগৃহীত

ডিমের খোসা বাহারি রঙয়ের হয়ে থাকে।

সাদা, নীলচে, গোলাপি, লালচে, হলদেটে, সাদা-কালো ছোপ ছোপ, সবুজাভ ইত্যাদি। এটা যেমন স্বাভাবিক বিষয়, তেমনভাবেই ডিমের কুসুমের রং হালকা ও গাড় হওয়াটিও স্বাভাবিক বিষয়। কিন্তু কেন ডিমের কুসুমের রং ভিন্ন হয়ে থাকে সেটা জানা আছে কি?

আমরা সাধারণত মুরগীর ডিম খেয়ে থাকি। ডিম ভেদে মুরগীর ডিমের কুসুম হালকা হলুদ থেকে গাড় কমলা পর্যন্ত হয়ে থাকে। এমনটা হওয়ার পেছনের কারণ হিসেবে অনেকেই ভাবেন মুরগীর ব্রিড বা প্রজাতি এক্ষেত্রে দায়ী।

আদতে মুরগীর প্রজাতি ভেদে মুরগীর ডিমের খোলসের রঙের উপরেই শুধু প্রভাব পড়ে, কুসুমের উপরে নয়। ডিমের কুসুমের রঙের প্রকারভেদের জন্য মুরগীর খাদ্যাভ্যাস দায়ী।

যে সকল মুরগীর খাবারে হলুদ-কমলা রঙের খাবার প্রাধান্য পায়, সে মুরগীগুলো গাড় রঙের কুসুম সমেত ডিম দেয়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/07/1557228473246.jpg
ডিমের ভিন্ন রঙের কুসুম

 

ডিমের কুসুমের রঙের ভিন্নতার বিষয়টি যেহেতু এখন জানা হলো, অনেকেই জানতে চাইবেন, কুসুমের রঙের ভিন্নতার উপর নির্ভর করে ডিমের পুষ্টিগুণেও কমবেশ হয় কিনা।

জেনে কিছুটা অবাক ও খুশি হবেন, কুসুমের রঙ এর উপর ডিমের পুষ্টিগুণ নির্ভর করে না। যদিও অনেকেই ধারণা করে থাকে, ডিমের কুসুমের রঙ যতটা গাড়, পুষ্টিগুণ ততটাই বেশি। কিন্তু দেখা গেছে গাড় কমলা রঙ ও হালকা হলুদ রঙের কুসুমে সমপরিমাণ প্রোটিন ও ফ্যাট থাকে। তবে কিছুক্ষেত্রে গাড় রঙের কুসুমে ভিটামিনের মাত্রা বেশি ও কোলেস্টেরলের মাত্রা কম থাকতে পারে।

তবে হ্যাঁ, কুসুমের রঙের উপর স্বাদের কিছুটা কমবেশ হতে পারে। গাড় রঙের কুসুমের ডিম হালকা রঙের কুসুমের ডিমের চাইতে কিছুটা সুস্বাদু মনে হবে অনেকের।

আরও পড়ুন: কেএফসি যে কারণে নাম পরিবর্তন করেছিল!

আরও পড়ুন: ভ্রমণ ও খাওয়ার জন্য বছরে ৫৫ লাখ টাকা বেতন!

আপনার মতামত লিখুন :