Alexa

বিজ্ঞানের বইয়ের সন্ধানে বইয়ের রাজ্যে শিশুরা

বিজ্ঞানের বইয়ের সন্ধানে বইয়ের রাজ্যে শিশুরা

বইমেলায় বিজ্ঞানের বইয়ের প্রকাশনীর সামনে শিশুদের ভিড় বেশি/ ছবি: বার্তা২৪.কম

বইমেলায় বিজ্ঞান বিষয়ক ও বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনির বইয়ের প্রতি কিশোর-তরুণদের ব্যাপক আগ্রহ দেখা যায়। তবে এবার শিশুরাও বিজ্ঞানের প্রতি আগ্রহ থেকে এসব বই খুঁজে বেড়াচ্ছে স্টলে স্টলে। প্রযুক্তির কল্যাণে বিজ্ঞানের জগৎ সম্পর্কে জেনে বিজ্ঞানের চমকপ্রদ সব বিষয়ের বইয়ের দিকে ঝুঁকছে শিশুরা।

শিশুদের আগ্রহের কথা মাথায় রেখে প্রকাশক ও লেখকরাও বিজ্ঞানের বইয়ের প্রতি বাড়তি মনোযোগ দিয়ে থাকেন। এবারও বইমেলার প্রায় প্রতিটি স্টলেই রয়েছে বিজ্ঞানের ও বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনির বই।

শনিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে দুই শিক্ষকের হাত ধরে বইমেলায় এসেছে কসমো স্কুল এন্ড কলেজের ১০ শিক্ষার্থী। ছোট ছোট এসব শিশুদের বইয়ের সাথে আরো ভালোভাবে পরিচিত করাতে স্কুল থেকে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/23/1550918581162.jpg

স্কুলটির প্রথম শ্রেণীর শিক্ষার্থী জারিফ আল ইয়াসা বার্তা২৪.কমকে জানায়, 'অনেক বই দেখে এসেছি। সাইন্সের বই আমার পছন্দ। আমরা সার্চ করছি সাইন্সের বইয়ের। অনেক বই কিনবো আজ। মিস আমাদের সাইন্সের বই কিনে দেবেন।'

অপর এক শিক্ষার্থী আমিনা ইসলাম জানায়, 'আমারও সাইন্সের বই পছন্দ। ইউটিউবে আমি সাইন্সের অনেক কিছু দেখেছি। ক্লাসেও দেখেছি। তাই সাইন্সের অনেকগুলো বই কিনবো।'

স্কুলটির শিক্ষিকা নাফিস বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘আজ আমার সঙ্গে ১০ জন শিক্ষার্থী এসেছে। প্রতিবছরই কিছু শিক্ষার্থীকে নিয়ে আসা হয়। সাইন্সের বইয়ের প্রতি ওদের আগ্রহ বেশি। আমরা ঘুরে ঘুরে দেখছি। ওদের পছন্দমত সাইন্সের বই কিনে দেওয়া হবে।’

মাহি প্রকাশনীর বিক্রেতা জোবায়ের বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘বাচ্চারা বিভিন্ন প্রজেক্ট তৈরি সম্পৃক্ত বই বেশি কিনেছে। ছোটদের কাজের মাঝে প্রজেক্ট বইটি বেশ ভালো বিক্রি হয়েছে। আর ইলেক্ট্রনিক প্রজেক্ট বইটিও অনেকে কিনছে। সাইন্সের বইয়ের প্রতি শিশুদের আগ্রহ বেশি লক্ষ্য করেছি।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/23/1550918646493.jpg

‘জ্ঞানে বিজ্ঞানে’ বইটি আগ্রহ নিয়ে দেখছিল শিশুরা। অনেকে কিনেও নিয়ে গেছে। বিজ্ঞান বিষয়ে প্রশ্ন ও উত্তর নিয়ে সাজানো বইটির প্রতি শিশুদের আগ্রহ বেশি। বইটির লেখক ফারহান আরা জাকির বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘বইটি প্রচুর ভালো চলছে। এই স্টলে অনেক বই থাকলেও শিশুরা বিজ্ঞানভিত্তিক বইগুলো বেশি দেখছে। শিশুদের নিয়েই গবেষণা করি, সে জায়গা থেকেই বিজ্ঞানভিত্তিক বই লেখা।’

স্টলের সামনেই সন্তানকে নিয়ে বিজ্ঞানভিত্তিক বই দেখছিলেন সুমন কায়সার। শিশুকে বিজ্ঞানের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতেই এ ধরনের বই কিনে দেওয়ার কথা জানালেন মগবাজারের এই বাসিন্দা। তিনি বলেন, ‘মেধার বিকাশের জন্য বই পড়ার বিকল্প নেই। মেলায় ঘুরে ঘুরে অনেক বই দেখে বাচ্চাকে গল্পের দুটি বই কিনে দিয়েছি। এখন দেখলাম ও নিজেই বিজ্ঞানের বই কেনার আবদার করছে। তাই দেখে বইটি কিনে দিচ্ছি।’

আপনার মতামত লিখুন :