একগুচ্ছ অপেক্ষা

মাহী ফ্লোরা
অলঙ্করণ কাব্য কারিম

অলঙ্করণ কাব্য কারিম

  • Font increase
  • Font Decrease

১.
ভালোবাসতে বাসতে আমি শিখে যাব একদিন গোলমরিচের চাষ। তোমাকে কী করে রাখতে হয় শান্ত, কী করে আর কোনো কিছু না বলেও বোঝাতে হয় আছি আমি, শিখে যাব। শিখে যাব অল স্পাইসের পাতার মতো!

২.
আমি মুগ্ধ হয়ে দেখি এমন ঘাতক সময়টাকে নিয়ে আপনি কেমন ঊর্ধ্বে তুলে নাচেন! আপনি হলেন তুই।
আমার সকল তুইগুলোকে বিশ্বাসেতে ছুঁই।

৩.
আমি আজন্ম সাধের মানুষি হতে চেয়ে চেয়ে কষ্টে কাটালাম। তুমি আমায় ঈশ্বরী করে বেদীতেই তুলে রাখলে হে পূজারী! পূজার ফুল পেতে পেতে ক্লান্তি আমাকে ঘিরেছে;

আমি মুখ ফেরাবার আগেই পায়ে চুমু রেখে যাও!

৪.
আমাকে ভুলে যায় বিকেলের মুখ চিবুকের গান
আজন্ম সম্মান গাঢ় খোলা আকাশের নীলে, আমাকে ভুলে গিয়ে নিজস্ব বাংলায় ডুবে আছে মন! সত্যি বলছি সে ভুলে গেছে অপেক্ষা, অথচ ছুটি হয়ে গেছে কবে, ছোট্ট এক ছুটির দুপুর; দক্ষিণ হাওয়ায় সে ছিল সবচে আপন!

৫.
হিসেবে কাঁচা তো নও। ভেঙেছো কাচের ঘর, দেখোনি সবুজ গাছের দল—
মরে যায়, ব্যথায়।
অধিকারবোধে।

এমন সূর্য কোথায়, যাকে ঘিরে তোমার পৃথিবী দুলছে, ঘোড়ার সোনালি কেশরের মতো। কিশোরীর হাতে বাঁধা দোলনার মতো, কৈশোরের পায়ে মাপা দোক্কার মতো—কাঁপাকাঁপা!

আপনার মতামত লিখুন :