Barta24

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ৩১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

গাড়ি পাচ্ছেন সংসদের ২২ উপ-সচিব

গাড়ি পাচ্ছেন সংসদের ২২ উপ-সচিব
ছবি: সংগৃহীত
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সংসদ সচিবালয়ের উপসচিবরাও গাড়ি কিনতে বিশেষ ঋণ বা সার্বক্ষণিক সংসদের গাড়ি ব্যবহারের সুবিধা পেতে যাচ্ছেন। সংসদের নিজস্ব কর্মকর্তা উপসচিব পদের ২২ কর্মকর্তাকে সেই সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। তবে, প্রেষণে আসা কোনো কর্মকর্তা এ সুবিধা পাবেন না।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) জাতীয় সংসদ ভবনে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংসদ সচিবালয় কমিশনের ৩০তম বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।

কমিটির সদস্য প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতার পক্ষে বিরোধী দলীয় উপনেতা রওশন এরশাদ, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। বিশেষ আমন্ত্রণে বৈঠকে যোগ দেন জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী।

সরকারের উপসচিব ও তদূর্ধ্ব কর্মকর্তাদের মত জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের উপসচিব বা সমমর্যাদার বা তদূর্ধ্ব কর্মকর্তারাও সার্বক্ষণিক গাড়ি ব্যবহার করতে পারবেন। এছাড়া সরকারের অন্যান্য বিভাগের মত সুদমুক্ত বিশেষ অগ্রিম এবং গাড়ি সেবা নগদায়ন সুবিধা দেওয়া হবে তাদের। বর্তমানে সেখানে কর্মরত নিজস্ব ২২ জন উপসচিব বা সমমর্যাদার কর্মকর্তার অনুকূলে গাড়ি কেনার জন্য সুদমুক্ত বিশেষ অগ্রিম বাবদ আসন্ন ২০১৯-২০ অর্থবছরে জনপ্রতি ৩০ লাখ টাকা করে মোট ছয় কোটি ৬০ লাখ টাকা (এককালীন) বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এছাড়া গাড়ি সেবা নগদায়ন বাবদ জনপ্রতি মাসিক ৫০ হাজার টাকা করে সবার জন্য বছরে মোট এক কোটি ৩২ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, এর আগে সরকারের উপসচিব ও তদূর্ধ্ব কর্মকর্তারা সরকারি গাড়ি ব্যবহারের সুবিধা পেলেও এতদিন সংসদের কর্মকর্তারা তা পেতেন না। এখন সেই সুবিধা সংসদের নিজস্ব কর্মকর্তারাও পাবেন। তবে প্রেষণে যাওয়া কর্মকর্তারা এই সুবিধা পাবেন না। বর্তমানে সংসদের ২২ জন উপসচিব রয়েছেন, তারা আবেদন করলে সংসদের গাড়ি বা গাড়ি কেনার জন্য সুদমুক্ত বিশেষ অগ্রিম ঋণ পাবেন।

সংসদ সচিবালয় ছাড়া এই পদ মর্যাদার কর্মকর্তারা এসব সুবিধা পান। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে তারা এইসব প্রাধিকারে দাবি করলেও তা বাস্তবায়ন হচ্ছিল না। এজন্য বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর নজরে আনার ব্যবস্থা করছিলেন তারা। সংসদ সচিবালয় কমিশন সভায় বিষয়টি কার্যপত্র হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।

জানাগেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ২০১৮ সালে ২৫ জুলাইয়ে “প্রাধিকারপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তাদের সুদমুক্ত বিশেষ অগ্রিম এবং গাড়ি সেবা নগদায়ন নীতিমালা, ২০১৮ (সংশোধিত)” জারি করেছে। সরকারের যুগ্মসচিব, অতিরিক্ত সচিব, সচিব/সিনিয়র সচিব পদমর্যাদার কর্মকর্তারা আগে থেকেই সার্বক্ষণিক সরকারি গাড়ি ব্যবহারে প্রাধিকার ভোগ করে আসছেন। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় হতে গত ২০১৭ সালের ১১ জুনে সরকারের উপসচিবদের এবং গত ২০১৮ সালের ১১ ডিসেম্বরে সশস্ত্র বাহিনীর মেজর/সমর্যাংদক ও লেফটেন্যান্ট কর্ণেল/সমর্যাংেক কর্মকর্তাদেরকে সার্বক্ষণিক সরকারি গাড়ি ব্যবহারের প্রাধিকার দেয়া হয়েছে। সংসদ সচিবালয় আইন, ১৯৯৪ এর ১২ ধারায় “সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য বেতন, ভাতা, ছুটি, ভবিষ্য তহবিল, গ্রাচুইটি, পেনশন ও চাকুরির অন্যান্য সুযোগ সুবিধা সংক্রান্ত আইন ও বিধিমালা, প্রয়োজনীয় অভিযোজন সহকারে সংসদ সচিবালয়ে নিযুক্ত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হইবে।” মর্মে বিধান রয়েছে। উক্ত বিধান অনুযায়ী সংসদ সচিবালয়ের উপসচিব বা সমমর্যাদার বা তদুর্ধ্ব পর্যায়ের কর্মকর্তারা সার্বক্ষণিক সংসদ সচিবালয়ের গাড়ি ব্যবহারের প্রাধিকার, সুদ মুক্ত বিশেষ অগ্রিম এবং গাড়ি সেবা নগদায়ন বাবদ অর্থ প্রদান করা প্রয়োজন। কিন্তু তারা তা পাচ্ছেন না।

আপনার মতামত লিখুন :

সিপিএ সেক্রেটারি জেনারেলের সঙ্গে স্পিকারের সাক্ষাত

সিপিএ সেক্রেটারি জেনারেলের সঙ্গে স্পিকারের সাক্ষাত
আকবর খানের সঙ্গে জাতীয় সংসদের স্পিকার ও সিপিএ সাবেক চেয়ারপার্সন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, ছবি: সংগৃহীত

কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়েশন (সিপিএ) সেক্রেটারি জেনারেল আকবর খানের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ও সিপিএ সাবেক চেয়ারপার্সন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

শনিবার (১৩ জুলাই) নিউইয়র্কে সাক্ষাৎকালে তারা সিপিএ'র কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা করেন।

পরে স্পিকার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের ইকোসক চেম্বারে হাই লেভেল পলিটিকাল ফোরাম (এইচএলপিএফ) এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

এর আগে এইচএলপিএফ-এ অংশগ্রহণ উপলক্ষে নিউইয়র্কে সফররত বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী ‘কার্যকর উন্নয়ন সহযোগিতার জন্য বৈশ্বিক অংশীদারিত্ব (জিপিইডিসি)’ এর সিনিয়র-লেভেল মিটিং (এসএলএম)-এ অংশ নেন।

প্রথমবারের মতো আয়োজিত জিপিইডিসি’র সিনিয়র লেভেল মিটিং এ ফোরামটির কো-চেয়ার হিসেবে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের পরিকল্পনা মন্ত্রী মোহাম্মদ আব্দুল মান্নান।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়েশনের (সিপিএ) নির্বাহী কমিটির চেয়ারপার্সন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ২০১৪ সালের ৮ অক্টোবর সিপিএ নির্বাহী কমিটির ২১তম চেয়ারপারসন নির্বাচিত হন এবং ২০১৭ সালের ৭ নভেম্বর পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। তার নেতৃত্বে ১-৮ নভেম্বর, ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ বাংলাদেশ সিপিএ'র ৬৩ তম সম্মেলন সফলভাবে আয়োজন করেন।

এরশাদের মৃত্যুতে স্পিকার-ডেপুটি স্পিকারের শোক

এরশাদের মৃত্যুতে স্পিকার-ডেপুটি স্পিকারের শোক
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ও ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া, ছবি: সংগৃহীত

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। রোববার (১৪ জু্লাই)  জাতীয় সংসদ থেকে পাঠানো এক শোক বার্তায় স্পিকার মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

এছাড়া শোক প্রকাশ করেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া এবং চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী।

উল্লেখ্য, বার্ধক্যজনিত কারণে হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। তিনি সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার সকাল ৭ টা ৪৫ মিনিটে ইন্তেকাল করেন।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র