Barta24

রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬

English

সুস্থ জাতি গঠনে মা ও শিশুর বিকাশ গুরুত্বপূর্ণ

সুস্থ জাতি গঠনে মা ও শিশুর বিকাশ গুরুত্বপূর্ণ
বক্তব্য রাখছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, ছবি: সংগৃহীত
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

সুস্থ সবল জাতি গঠনে মা ও শিশুর পুষ্টি নিশ্চিতকরণে বর্তমান সরকার নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে বলে জানিয়েছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। তিনি বলেছেন, সুস্থ জাতি গঠনে মা ও শিশুর বিকাশ গুরুত্বপূর্ণ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশ্বে নারীর ক্ষমতায়নে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বাংলাদেশ উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি দ্রুততর গতিতে অগ্রসর হওয়ার মূলে রয়েছে তৃণমূল পর্যায়ের নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন।

বুধবার (২৪ জুলাই) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের (বিআইসিসি) উইন্ডি টাউন হলে মহিলা ও শিশু বিষয়ক অধিদফতর আয়োজিত মা ও শিশু সহায়তা কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন স্পিকার।

স্পিকার বলেন, ‘মা ও শিশুর কল্যাণে এই কর্মসূচি মাইলফলক। মা ও শিশুর পুষ্টি ও সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করে সুস্থ সুন্দর জাতি গঠনে মা ও শিশুর বিকাশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এই কর্মসূচির আওতায় ৯টি সেবাকে একীভূত করে সুবিধাভোগী মায়েদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে যা নিঃসন্দেহে একটি সুস্থ জাতি গঠনে সুদূর প্রসারী ভূমিকা রাখবে বলে তিনি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

ড. শিরীন শারমিন বলেন, শিশুর সুস্থ বিকাশের জন্য ০-১০০০ দিন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এসময়ই তাঁর মস্তিষ্কের ও স্নায়ুর বিকাশ হয়। একারণে মায়ের গর্ভ থেকে ৪ বছর পর্যন্ত ভিন্নভিন্ন ভাগে ভাগ করে শিশুর পুষ্টি নিশ্চিত করতে এ কর্মসূচিতে তা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। দরিদ্র শিশু ও মায়ের পুষ্টি চাহিদা নিশ্চিত করতে সরকার নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে। এর পাশাপাশি জাতিসংঘ বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি, সূচনা ফাউন্ডেশন মা ও শিশুর পুষ্টি নিয়ে কাজ করতে শুরু করেছে। সকলের সমন্বিত প্রয়াস মা ও শিশুর জন্য কল্যাণ বয়ে আনবে বলে তিনি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব (সংস্কার ও সমন্বয়) শেখ মুজিবুর রহমান এনডিসি, জাতিসংঘ বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ রিচার্ড রাগান।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কামরুন নাহার অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। মহিলা ও শিশু বিষয়ক অধিদফতরের মহাপরিচালক বদরুন নেছা ও মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আইনুল কবীর প্রকল্পের কার্যক্রমের ভিশন ও রূপরেখার উপর পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপন করেন। কর্মসূচির প্রেক্ষাপট তুলে ধরে বক্তব্য উপস্থাপন করেন বাংলাদেশে বিশ্ব খাদ্য সংস্থার হেড অব প্রোগ্রাম রেজাউল করিম।

পরে তিনি মহিলা ও শিশু বিষয়ক অধিদফতরের 'মা ও শিশু সহায়তা কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও লোগো উন্মোচন করেন। উল্লেখ্য মা ও শিশু সহায়তা কার্যক্রম বাস্তবায়নে আর্থিক ও কারিগরি সহায়তা প্রদান করছে জাতিসংঘ বিশ্ব খাদ্য সংস্থা (ডাব্লিউ এফ ও)।

আপনার মতামত লিখুন :

সংসদে ঈদ জামাত সকাল সাড়ে ৭টায়

সংসদে ঈদ জামাত সকাল সাড়ে ৭টায়
সংসদ ভবন

প্রতি ঈদের মতো এবারও সংসদে ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ১২ আগস্ট ঈদুল আজহার দিন সকাল সাড়ে ৭টায় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় ঈদ জামাত অনুষ্টিত হবে।

যদি বৈরী আবহাওয়া থাকে তাহলে সংসদের টানেলের নিচে জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

সংসদ ভবনের ঈদ জামাত পরিচালনা করবেন জাতীয় সংসদ জামে মসজিদের পেশ ইমাম।

ঈদ জামাতে জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ, অন্যান্য হুইপ, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, সংসদ-সদস্য ও সংসদ সচিবালয়ের কর্মচারীরা অংশ নেবেন। এছাড়াও সংসদের ঈদের নামাজের জামাত সবার জন্য উন্মুক্ত। জামাতে আগ্রহী মুসল্লিদের অংশ নিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

এমপি হিসেবে শপথ নিলেন সালমা চৌধুরী

এমপি হিসেবে শপথ নিলেন সালমা চৌধুরী
সালমা চৌধুরীকে শপথ বাক্য পাঠ করাচ্ছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চেীধুরী/ ছবি: সংগৃহীত

একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন সালমা চৌধুরী রুমা। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ছিলেন। জাতীয় সংসদের আসন-৩৩৪ এবং সংরক্ষিত মহিলা আসন-৩৪ এর সদস্য হিসেবে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিলেন রাজবাড়ী জেলার এই নারী।

বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) বিকাল ৩টায় জাতীয় সংসদ ভবনে স্পিকারের কার্যালয়ের তার শপথ বাক্য পাঠ করান স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। সালমা চৌধুরী গত ৪ আগস্ট বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।

গত ৯ জুলাই রুশেমা বেগম মারা গেলে জাতীয় সংসদের ৩৩৪ নম্বর সংরক্ষিত নারী আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। এর প্রেক্ষিতে ১৮ জুলাই আসনটিতে উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় ছিল ২৫ জুলাই পর্যন্ত ও বাছাই ২৮ জুলাই। আর প্রত্যাহারের শেষ সময় ১ আগস্ট এবং ভোট ১৮ আগস্ট।

সাবেক সংসদ সদস্য ও রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি প্রয়াত ওয়াজেদ চৌধুরীর কন্যা সালমা চৌধুরী রুমা। তিনিও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী।

সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচন আইন অনুযায়ী, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর প্রাপ্ত আসন অনুসারে দলগুলোর মধ্যে সংরক্ষিত আসন বণ্টন করে দেয় নির্বাচন কমিশন। সে অনুযায়ী ক্ষমতাসীন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৪৩টি, জাতীয় পার্টির চারটি, বিএনপির একটি, ওয়ার্কার্স পার্টির একটি এবং স্বতন্ত্ররা একটি আসন পায়।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র