‘দুর্নীতিবাজদের ক্রসফায়ার দিচ্ছেন না কেন?’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
সংসদ অধিবেশন ও বিএনপি নেতা হারুনুর রশীদ

সংসদ অধিবেশন ও বিএনপি নেতা হারুনুর রশীদ

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: সরকারের অর্জন প্রাতিষ্ঠানিক দুর্নীতিতে ম্লান হয়ে যাচ্ছে বলে দাবি করেছেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান। অন্যদিকে দুর্নীতিবাজদের ‘ক্রসফায়ার’ দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য মো. হারুনুর রশীদ।

তিনি বলেন, ‘ক্রসফায়ার যদি বৈধ হিসেবে ধরে নেন, এদেরকে কেন ক্রসফায়ারে দিচ্ছেন না?’

সোমবার (০৯ সেপ্টেম্বর) রাতে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে একাদশ জাতীয় সংসদের চতুর্থ অধিবেশনে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে তারা এসব কথা বলেন।

পীর ফজলুর রহমান বলেন, প্রাতিষ্ঠানিক অনিয়ম এবং দুর্নীতি সরকারের অর্জনকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলেছে এবং ম্লান করে দিচ্ছে।

এ সময় বালিশকাণ্ড, হাসপাতালের পর্দা কেনা ও পুকুর খননের অভিজ্ঞতা অর্জনে বিদেশ ভ্রমণের চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, সাড়ে ৫ হাজার টাকার বই স্বাস্থ্য অধিদফতর কিনেছে ৮৫ হাজার ৫০০ টাকায়। দুর্নীতি হয়ে গেছে হাস্যরসের বিষয়। লুটপাটে ডুবলো ওয়াসা!

পীর ফজলুর রহমান আরও বলেন, সরকারের সমস্ত অর্জন ম্লান হচ্ছে। সংসদে জাতীয় নেতৃবৃন্দ বসে আছেন। আমি চাই সিনিয়র পার্লামেন্টারিয়ানদের দিয়ে একটি কমিটি করেন। এই সমস্ত প্রাতিষ্ঠানিক অনিয়ম এবং দুর্নীতি যারা করেন তাদের বিষয় অনুসন্ধান করেন। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন।

আরও পড়ুন: প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা জানালেন বিএনপির হারুন

বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ সরকারের বিভিন্ন খাতের দুর্নীতির চিত্র তুলে ধরে বলেন, ‘ডেঙ্গুতে সারা দেশ দিশেহারা। ঈদুল আজহায় কোরবানির পশুর চামড়া মাটিতে পুঁতে রাখা হয়েছে।

সরকার দলীয় সংসদ সদস্যদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমি সরকারের বিরুদ্ধে বলছি না। আপনারা সঠিকভাবে পদক্ষেপ নিন, এতে জাতি উপকৃত হবে। আমাদের আশা-আকাঙ্ক্ষা প্রতিফলিত হবে।

হারুনুর রশীদ বলেন, হাসপাতালের পর্দা কেনা বালিশকাণ্ডকেও হার মানিয়েছে। কোটি কোটি টাকা লোপাট হচ্ছে, পদক্ষেপ নিচ্ছেন না কেন? ক্রসফায়ারে মাদক ব্যবসায়ীকে হত্যা করছেন, বিভিন্ন অপরাধীকে হত্যা করছেন, এদের কেন ক্রসফায়ারে হত্যা করছেন না? ক্রসফায়ার যদি বৈধ হিসেবে গ্রহণ করেন, যারা সম্পদ অপচয় করছে তাদের বিরুদ্ধে দৃশমান ব্যবস্থা নিচ্ছে না কেন? দুই কোটি টাকার অপরাধে খালেদা জিয়াকে জেলে পাঠিয়েছেন। অথচ স্বাস্থ্য খাতে হাজার হাজার কোটি লোপাট হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছেন না।

এ সময় তিনি প্রিয়া সাহার বিষয় উত্থাপন করে বলেন, প্রিয়া সাহা কে? তিনি কিভাবে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে নালিশ নিয়ে পৌঁছাল? এখানে রাষ্ট্রের সুস্পষ্ট জবাব নেই। তার বিরুদ্ধে মামলাগুলো কেন খারিজ হলো?

আপনার মতামত লিখুন :