ট্রেনে অবৈধ মালামাল বহন নিয়ন্ত্রণে স্ক্যানার বসানোর সুপারিশ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
সংসদ ভবন, ছবি: সংগৃহীত

সংসদ ভবন, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: রেলের মাধ্যমে যাতে অস্ত্র, মাদকসহ অবৈধ মালামাল বহন করতে না পারে সেজন্য ঢাকার কমলাপুর, বিমানবন্দর ও চট্টগ্রাম রেল স্টেশনে স্ক্যানার মেশিন বসানোর সুপারিশ করেছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।

একই সঙ্গে রেলওয়ের সব ধরনের অনিয়ম দুর্নীতি বন্ধ করা ও রেলকে আধুনিকায়নের জন্য এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিং সিস্টেম (ইআরপি) বাস্তবায়নের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদের রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়।

কমিটির সভাপতি এ. বি. এম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য ও রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন, আসাদুজ্জামান নূর, শফিকুল ইসলাম শিমুল, শফিকুল আজম খাঁন, মো. সাইফুজ্জামান, এইচ এম ইব্রাহিম, নাছিমুল আলম চৌধুরী, গাজী মোহাম্মদ শাহ নওয়াজ এবং নাদিরা ইয়াসমিন জলি অংশগ্রহণ করেন।

বৈঠকে ট্রেনে অবৈধ মালামাল পরিবহন প্রতিরোধ ও যাত্রীর নিরাপত্তার স্বার্থে ঢাকার কমলাপুর ও বিমানবন্দর ও চট্টগ্রাম স্টেশনে বডি স্ক্যানার এবং লাগেজ স্ক্যানার দ্রুত স্থাপনের সুপারিশ করা হয়। এছাড়াও কমিটি ঢাকা ও চট্টগ্রামের পাশাপাশি পর্যায়ক্রমে দেশের সকল জেলা ও উপজেলা স্টেশনেও বডি স্ক্যানার এবং লাগেজ স্ক্যানার স্থাপনের সুপারিশ করে।

বৈঠকে সিলেটের কুলাউড়ায় সেতু থেকে বগি পড়ে গিয়ে রেল দুর্ঘটনার তদন্ত রিপোর্ট কমিটিতে উত্থাপিত হয়। রিপোর্টে জানানো হয়, এ দুর্ঘটনায় মোট ২৮ লাখ ৩৪ হাজার ২৫৭ টাকার ক্ষতি হয়। দুর্ঘটনায় জন্য এসএসএই/ওয়ে কুলাউড়া মো. জুলহাস এবং মেট গ্যাং সাইফুল আলমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে এবং এদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলে জানানো হয়। এ সময় দুর্ঘটনা রোধে ৭ দফা সুপারিশ করা হয়েছে বৈঠকে।

কমিটি বাংলাদেশ রেলওয়ের রিফর্ম প্রকল্পটির আওতায় যথাযথ ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে প্রয়োজনে আউটসোর্সিং করে এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিং সিস্টেম (ইআরপি) টি বাস্তবায়ন করার সুপারিশ করেন কমিটির সদস্য নাছিমুল আলম চৌধুরী।

তিনি বলেন, 'এটি করা সম্ভব হলে রেলের টিকিটিং সিস্টেমসহ রেল পরিষেবা সবই অনলাইনের আওতায় আসবে। এর ফলে দুর্নীতি দূর হবে।'

তবে এটি করার মতো রেলের সক্ষমতা না থাকলে রেলওয়ে এ বিষয়ে আইসিটি বিভাগের সহায়তা নিতে পারে বা অন্য কোনো বিশেষজ্ঞ সংস্থার সহায়তা নেওয়ার কথাও বলেন তিনি।

এ সময় রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন রেলকে ভারত বা চীনের রেল পরিষেবার আদলে ঢেলে সাজানো হবে বলে কমিটিকে জানান।

বৈঠকে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ও ম্যুরাল এবং সংক্ষিপ্ত জীবনী মার্বেল পাথরে লিপিবদ্ধ করে স্টেশনগুলোর দর্শনীয় স্থানে স্থাপনের সুপারিশ করা হয়। কমিটি গাজীপুরের ধীরাশ্রম কন্টেইনার টার্মিনাল নির্মাণের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করে।

আপনার মতামত লিখুন :