ইস্তাম্বুলে মেয়র নির্বাচনে এরদোয়ান প্রার্থীর পরাজয়



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,বার্তা২৪.কম, ঢাকা
রিসেপ তায়িপ এরদোয়ান

রিসেপ তায়িপ এরদোয়ান

  • Font increase
  • Font Decrease

ইস্তাম্বুলে দ্বিতীয় বারের মতো অনুষ্ঠিত হওয়া মেয়র নির্বাচনে অনেক বড় ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে ক্ষমতাসীন রিসেপ তায়িপ এরদোয়ানের জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (একে) প্রার্থী।

রোববার (২৩ জুন) নির্বাচনে বিরোধী দল কামাল আতাতুর্কের রিপাবলিকান পিপলস পার্টির (সিএইচপি) প্রার্থী ইকরাম ইমামোগলু বেশ বড় ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন।

সোমবার (২৪ জুন) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানায়, বেসরকারি ফলাফলে ইস্তাম্বুলের মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন ইকরাম ইমামোগলু।  

সূত্র জানায়, ৯৯ দশমিক ৩৭ শতাংশ ভোট গণনা শেষে বিরোধীদলের প্রার্থী ইকরাম ইমামোগলু পেয়েছেন ৫৪ দশমিক ০৩ শতাংশ ভোট। অন্যদিকে  ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী বিনালি ইয়েলদ্রিম পেয়েছেন ৪৫ দশমিক ০৯ শতাংশ ভোট। ইকরাম ইমামোগলু তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর চেয়ে ৭ লাখ ৭৭ হাজার ৫৮১ ভোট বেশী পেয়েছেন।

তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী এরদোয়ান নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে এক বার্তায় ইকরাম ইমামোগলুকে অভিনন্দন জানান।

এদিকে, ‘যে ইস্তাম্বুলে জয়ী হবেন, সে তুর্কি জয়ী হবেন’ নির্বাচনের আগে করা এমন মন্তব্যে ফেঁসে গেছেন এরদোয়ান।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/24/1561371584686.jpg

গত ৩১ মার্চ ইস্তাম্বুলের মেয়র নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ উঠিয়ে, ক্ষমতাসীন একে পার্টি নির্বাচন বয়কট করে। ঠিক তার দুই মাস পরে পুনরায় অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আরও বেশি ভোটে ইকরাম ইমামোগলু পুনরায় জয় লাভ করেন। গত মার্চের নির্বাচনে ব্যবধান ছিল মাত্র ১৩ হাজার ভোট।

নির্বাচনের ফলাফলের পর ইকরাম ইমামোগলু বলেন, এই নির্বাচন প্রমাণ করে গণতন্ত্র এখনও বেঁচে আছে।

স্থানীয় সংবাদ সংস্থা জানায়, এরদোয়ানের পরবর্তী নির্বাচনের জন্য এটি একটি সতর্কবার্তা। 

একইসঙ্গে এই নির্বাচনের মাধ্যমে ইস্তাম্বুলে দীর্ঘ ২৫ বছরের একে পার্টির শাসনের অবসান ঘটতে যাচ্ছে। 

ক্ষমতাশীল একে পার্টি ২০০৩ সাল থেকে তুরস্ক শাসন করে আসছে। এমনকি আধুনিক তুরস্কের জনক মোস্তফা কামাল আতার্তুক পরবর্তী ক্ষমতাসীন নেতা হিসেবে এরদোয়ানকে বিবেচনা করা হয়।